kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


৪২ অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

পিরোজপুর প্রতিনিধি   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



পিরোজপুর সদরের ১ নম্বর সিকদার মল্লিক ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য রুহুল আমিন শেখের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, সংখ্যালঘুদের জমি দখল, লোকজনকে মারধরসহ ৪২টি অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে গ্রামবাসী। শুক্রবার সকালে পিরোজপুর প্রেস ক্লাবের সংবাদ সম্মেলনে গ্রামবাসীর পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো. জামাল সিকদার।

অভিযোগগুলোর মধ্যে কয়েকটি হলো সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মন্দিরের জায়গা দখল করে মাছের ঘের তৈরি, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি রাজা আলী সিকদারের বাড়িতে ডাকাতি, তাঁর ছোট ছেলে মিন্টুর পায়ে গুলি করা, তিনি নিজে গাঁজা-ইয়াবা বিক্রি করলেও পুলিশকে ম্যানেজ করে প্রতিপক্ষকে মামলায় ফাঁসানো, বর্তমান সরকারের ১০ টাকা মূল্যের রেশন কার্ডের চাল জামায়াত-বিএনপির সদস্যসহ নিজের স্বজনদের মধ্যে বিতরণ করা।

সংবাদ সম্মেলনে ক্ষতিগ্রস্ত সংখ্যালঘু পরিবারের কয়েকজন সদস্য জানায়, মেম্বার রুহুলের অত্যাচারে তারা গ্রাম ছেড়ে ভারত চলে যাওয়ার চিন্তাভাবনা করছে। তারা জানায়, রুহুলের বিরুদ্ধে স্থানীয় সংসদ সদস্য এ কে এম এ আউয়ালের কাছে একাধিকবার অভিযোগ করা হলেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি। এ সময় তারা রুহুলের নির্যাতন থেকে রক্ষা পেতে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা চায়।

এদিকে রুহুল শেখ এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি পর পর দুইবার জনগণের ভোটে নির্বাচিত মেম্বার। আমার সঙ্গে নির্বাচনে হেরে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে এলাকার কিছু লোককে দিয়ে মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ করেছেন প্রতিপক্ষ পরাজিতরা। ’


মন্তব্য