kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

নৌকা টাঙিয়ে দখল

লালমনিরহাট প্রতিনিধি   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



লালমনিরহাটের পাটগ্রামে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। আগামী ৩১ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি নিজেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বলে প্রচার করছেন।

এখন পর্যন্ত মনোনয়ন নিশ্চিত না হলেও তিনি ওই জমিতে থাকা দোকানে কাঠের নৌকা ঝুলিয়ে এর মালিকানা দাবি করছেন। তিনি বলছেন, তিনি আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। তাই ওই জমি নাকি তাঁর। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) লিজ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ওই জমি ভোগদখলকারীর পক্ষে রায় দিলেও ওই আওয়ামী লীগ নেতা তা মানতে নারাজ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের পাশে পাটগ্রাম উপজেলার বাউড়া বাজারে ২০০৯ সাল থেকে ১৯ দশমিক ৪৮ বর্গমিটার খাসজমি লিজ নিয়ে ইলেকট্রনিকসের ব্যবসা করে আসছেন আবদুস সালাম। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে জমিটি নিজেদের দাবি করে দখলের হুমকি দিয়ে আসছিলেন বাউড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী আবুল কালাম আজাদ ওরফে দুলাল বসুনিয়া ও তাঁর ছেলে সুমন বসুনিয়া। আবদুস সালাম সম্প্রতি দোকান মেরামত করতে গেলে তাতে বাধা দেওয়া হয়। পরে বিষয়টির প্রতিকার চেয়ে গত ২২ সেপ্টেম্বর পাটগ্রামের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর লিখিত আবেদন করেন আবদুস সালাম। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৭ সেপ্টেম্বর সরেজমিন তদন্ত করে লিজগ্রহীতা সালামকে ওই জমিতে ঘর নির্মাণে কোনো বাধা নেই বলে জানান পাটগ্রামের এসি ল্যান্ড টি এম এ মবিন। কিন্তু তা উপেক্ষা করে ওই রাতেই দুলাল বসুনিয়ার লোকজন আবদুস সালামের দোকান থেকে মালামাল সরিয়ে তাতে তালা লাগিয়ে দেয়। পরে ওই দোকানের সামনে বাঁশের খুঁটিতে কাঠের তৈরি একটি নৌকা টাঙিয়ে দেয়। এ ঘটনার পর পাটগ্রাম থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। আবদুস সালাম বলেন, ‘গত ২৮ সেপ্টেম্বর পাটগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত পুলিশ মামলাটি রেকর্ডই করেনি। ’

জানতে চাইলে পাটগ্রাম উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) টি এম এ মমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বৈধ কাগজপত্র থাকায় আবদুস সালামকে জমিসহ তাঁর দোকানঘর বুঝিয়ে দেওয়ার পরও তাতে বাধার সৃষ্টি করা আইনের প্রতি অশ্রদ্ধা।

তবে বাউড়া ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী আবুল কালাম আজাদ ওরফে দুলাল বসুনিয়া ওই জমি ও দোকানঘর নিজের দাবি করে বলেন, ‘আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছি। তাই দোকানের সামনে দলীয় প্রতীক হিসেবে নৌকা টাঙিয়ে রেখেছি। ’

পাটগ্রাম থানার ওসি অবনী শংকর কর অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ইউএনও মহোদয় তদন্ত করে জানালেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর-কুতুবুল আলম বলেন, স্থানীয় তহশিলদার বিষয়টির তদন্ত করে প্রতিবেদন দিয়েছেন।

পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন বাবুল বলেন, ‘অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁর বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

উল্লেখ্য, আগামী ৩১ অক্টোবর পাটগ্রামের বিলুপ্ত ছিটমহলগুলো অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এমন সাতটি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ হবে।


মন্তব্য