kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যা

তিন স্থানে যুবলীগ নেতাসহ তিনজনের লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে প্রবাসীকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। সাভারে নিখোঁজ যুবলীগের নেতার গুলিবিদ্ধ এবং হাত-পা ও মুখ বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

কেরানীগঞ্জে বুড়িগঙ্গা নদীতে পাওয়া গেছে যুবকের গলিত মরদেহ। এ ছাড়া রূপগঞ্জে আরেক যুবকের লাশ মিলেছে। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

গাজীপুর : চাঁদা না পেয়ে দেলোয়ার হোসেন নামের এক মালয়েশিয়া প্রবাসীকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে টঙ্গীর এরশাদ নগরের ৪ নম্বর ব্লকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় সন্ত্রাসীদের মারধরে দেলোয়ারের বড় বোন ফাতেমা বেগম আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে যায়। দেলোয়ার ওই ব্লকের আবদুল কাদেরের (মৃত) ছেলে। দোলা নামের তিন বছরের একটি মেয়ে রয়েছে তাঁর। পরিবার সূত্রে জানা যায়, দেলোয়ার আট বছর ধরে মালয়েশিয়ায় ছিলেন। মাত্র তিন মাস আগে ছুটিতে দেশে আসেন তিনি। ১০-১২ দিন পরই সেখানে তাঁর ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। দেশে আসার পর থেকে এরশাদ নগরের ত্রাস সন্ত্রাসী পিচ্চি হোসেন তাঁর কাছে মোটা অঙ্কের টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। এ ব্যাপারে ফাতেমা বেগম জানান, তাঁদের এক চাচাতো ভাই এরশাদ নগরের ৪ নম্বর ব্লকের কয়েক মাস আগের ডাবল মার্ডার মামলার আসামি। এ অজুহাতে তাঁর ভাই দেলোয়ার দেশে আসার পর থেকে পিচ্চি হোসেন চাঁদা দাবি করে আসছিল। গতকাল সকালে পিচ্চি হোসেন দা ও রামদা হাতে সহযোগীদের নিয়ে এসে দেলোয়ারকে ডাকাডাকি করতে থাকে। কারণ জানতে চাইলে তাঁকে (ফাতেমা) বেধড়ক মারধর করে। তাঁর চিত্কার শুনে দেলোয়ার বের হয়ে এলে ‘পাইছি তরে, তরেই আমরা খুঁজছি’ বলেই চারদিক থেকে ঘিরে ধরে। একপর্যায়ে পিচ্চি হোসেন দা দিয়ে পেটে কোপ দিলে দেলোয়ারের ভুঁড়ি বের হয়ে মাটিতে পড়ে যায়। এ সময় সহযোগীদের নিয়ে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাতে মৃত্যু নিশ্চিত করে তারা চলে যায়। টঙ্গী থানার ওসি (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, পূর্বশত্রুতার জেরে টঙ্গীর শীর্ষ সন্ত্রাসী পিচ্চি হোসেন তার দলবল নিয়ে দেলোয়ার হোসেনের বাড়িতে হামলা চালায় এবং তাঁকে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

সাভার (ঢাকা) : সাভার উপজেলায় নিখোঁজের তিন দিন পর বিরুলিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সদস্য আল আরাফাত সজলের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে কাউন্দিয়া সিংগাশার গ্রামে তুরাগ নদের তীর থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। লাশের হাত-পা ও মুখ বাঁধা ছিল। পূর্বশত্রুতার জেরে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের ধারণা। এ ঘটনায় বিরুলিয়া গ্রামের যুবক রকিকে আটক করা হয়েছে। যুবলীগ নেতা সজল একই গ্রামের কৃষক ওম্মত মিয়ার ছেলে। পরিবারের বরাত দিয়ে বিরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সুজন জানান, গত সোমবার রাতে বাড়ি থেকে মোবাইল ফোনে সজলকে ডেকে নেয় সন্ত্রাসীরা। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এ ঘটনায় তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার সাভার মডেল থানায় জিডি করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে তুরাগ নদের তীরে যুবলীগ নেতা সজলের লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয় জেলেরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নেতার গুলিবিদ্ধ এবং হাত-পা ও মুখ বাঁধা লাশ উদ্ধার করে।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) : রূপগঞ্জ উপজেলায় আব্দুল মালেক নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার পশ্চিম কালাদি এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়। মালেক ওই এলাকার আহাম্মদ আলীর ছেলে। পারিবারিক কলহের জেরে তিনি কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন বলে পুলিশের ধারণা। এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) : বুড়িগঙ্গা নদী থেকে অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবকের গলিত লাশ উদ্ধার করেছে নৌ পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নদীর পোস্তগোলা শ্মশান ঘাট এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।


মন্তব্য