kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গাড়ি থেকে নেমে চিৎকার, রক্ষা

ধামরাইয়ে চারজন আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ঢাকার ধামরাইয়ে পোশাক কারখানার এক কর্মকর্তাকে গোয়েন্দা পরিচয়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। কৌশলে গাড়ি থেকে বের হয়ে তিনি চিৎকার করেন।

জনতা ধাওয়া করে চার দুর্বৃত্তকে আটক করে। গত সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ধামরাইয়ের সুতিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলো ময়মনসিংহের ভৈলর চরপাড়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে রাশেদ কবির (২৯), সাভারের জালেশ্বর গ্রামের জুমাত আলীর ছেলে কয়েদ আলী (৫০), উত্তর চাপাইন লালটেকের আবু হানিফের ছেলে মামুন (২৫) ও জালাল উদ্দিনের ছেলে সিরাজ উদ্দিন (২৬)।

ধামরাইয়ের ঢুলিভিটার স্নোটেক্স কারখানার নির্বাহী (জুনিয়র এক্সিকিউটিভ, স্টোর) আসাদুজ্জামান জানান,  সোমবার রাত ৮টার দিকে তিনি অফিস থেকে বের হয়ে হেঁটে কসমস বাসস্ট্যান্ডের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় একটি প্রাইভেট কার থেকে চারজন লোক গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাঁকে গাড়িতে তুলে নেয়। গাড়িতে তুলে তারা বলতে থাকে, ‘তুই গাঁজা খাস। ’ পরে তাঁকে বাড়িতে কল করে টাকা আনতে বলে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তাঁর সঙ্গে থাকা সাড়ে তিন হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোনসেট হাতিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। গাড়িটি স্থানীয় নান্নার এলাকায় গেলে তিনি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার কথা বলেন। তারা অনুমতি দিলে গাড়ি থেকে বের হয়ে চিত্কার করতে থাকেন। তখন আশপাশের লোকজন ওই গাড়ি ধাওয়া করে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সুতিপাড়া বাসস্ট্যান্ডে ধরে ফেলে। পরে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ধামরাই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ‘আটক দুর্বৃত্তদের কাছ থেকে ছিনতাই করা ৬০০ টাকা ও মোবাইল ফোনসেট উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ’

এদিকে সোমবার গভীর রাতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের আশুলিয়ার বিশমাইল এলাকা থেকে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে চারজনকে আটক করেছে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে চাপাতি, রামদা ও ছুরি উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা (উত্তর) গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক এ এফ এম সায়েদ জানান, ডাকাতি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িত চিহ্নিত সন্ত্রাসী বিষুকে শিল্পাঞ্চলের জামগড়া থেকে আটক করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আশুলিয়ার বিশমাইল থেকে মামুন (২৫), সেলিম (২৮) ও দুলালকে (২৫) আটক করা হয়।


মন্তব্য