kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মনপুরা-তজুমদ্দিন নৌপথ

লক্কড়ঝক্কড় সিট্রাক চলছে নিষিদ্ধ ট্রলার

ভোলা প্রতিনিধি   

৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ভোলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মনপুরার সঙ্গে তজুমদ্দিন উপজেলার যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম সিট্রাকটি মঙ্গলবার ফের বিকল হয়ে পড়ায় যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েছে। যাত্রীরা অভিযোগ করেছে, প্রায় সিট্রাকটি বিকল হয়ে পড়ে।

এর পরও সিট্রাকটির সমস্যা সমাধানে স্থায়ী কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ। এতে ওই নৌপথে ছোট ছোট ট্রলারযোগে নদী পারাপারে ঝুঁকি নিতে হচ্ছে যাত্রীদের। কর্তৃপক্ষ ট্রলার মালিকদের সঙ্গে যোগসাজশ করে সিট্রাকটি সব সময় বিকল করে রাখে বলেও অভিযোগ তাদের। এতে ট্রলার মালিকরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে যাত্রী পারাপারের সুযোগ পান। অথচ উত্তাল মেঘনায় এসব ট্রলার চলাচলে সরকারি নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

যাত্রীদের অভিযোগ, মনপুরা-তজুমদ্দিন নৌপথের দীর্ঘদিনের পুরনো লক্কড়ঝক্কড় সিট্রাকটি প্রায় বিকল থাকে। তারা টাকার বিনিময়ে অবৈধ ট্রলার মালিকদের সঙ্গে যোগসাজশ করে যাত্রীদের ট্রলারে যেতে বাধ্য করে। এতে করে যাত্রীদের ঝুঁকির পাশাপাশি অতিরিক্ত ভাড়াও গুনতে হয়। মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে মনপুরার হাজিরহাট সিট্রাক ঘাটে গিয়ে দেখা গেছে, মনপুরা-তজুমদ্দিন নৌপথের সিট্রাকটি ঘাটে নোঙর করে রাখা হয়েছে। এর নিচে কয়েকজন শ্রমিক মেরামত কাজ করছে। কিন্তু সিট্রাকযোগে তজুমদ্দিন যাওয়ার জন্য প্রায় অর্ধশতাধিক যাত্রী ঘাটে অপেক্ষা করছে। ভুক্তভোগী যাত্রীরা জানায়, সকাল ১০টার দিকে সিট্রাক তজুমদ্দিন যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কর্তৃপক্ষ পরে জানায় সেটি যাবে না।

মনপুরা উপজেলা চেয়ারম্যান সেলিনা আক্তার চৌধুরী বলেন, সিট্রাক ইজারাদার অনেক সময় ইচ্ছা করেই সেটি অকেজো করে রাখেন। তাঁরা অবৈধ ট্রলার মালিকদের সঙ্গে যোগসাজশে ট্রলারে যাত্রী পারাপারের সুযোগ করে দেন। তিনি আরো বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি নিজে বিআইডাব্লিউটিএ ও বিআইডাব্লিউটিসির চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে মনপুরা-তজুমদ্দিন রুটে দ্রুত একটি নতুন সিট্রাক দেওয়ার কথা জানিয়েছি। তারা আমাকে জানিয়েছেন, এ রুটে নতুন একটি সিট্রাক চালুর ব্যবস্থা করে মনপুরা ও তজুমদ্দিনবাসীর দুর্ভোগ থেকে রক্ষা করবেন। ’ তবে মনপুরা-তজুমদ্দিন রুটে চলাচলকারী সি ট্রাকের ইজারাদার নুরুদ্দিন হাওলাদার অবৈধ ট্রলার মালিকদের সঙ্গে যোগসাজশে ট্রলারে যাত্রী পারাপারের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।


মন্তব্য