kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নিখোঁজের তিন দিন পর পদ্মায় ভেসে এলো লাশ

গোয়ালন্দে জমি জরিপকারীর শরীরে গুলির চিহ্ন

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



নিখোঁজের তিন দিন পর পদ্মায় ভেসে এলো লাশ

তৌহিদুজ্জামান

নিখোঁজের তিন দিন পর গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলায় এক জমি জরিপকারীর (আমিন) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লাশের শরীরে গুলির চিহ্ন ছিল।

পুলিশ, পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চরদৌলতদিয়া গ্রামের রোকন বেপারীর (মৃত) ছেলে তৌহিদুজ্জামান বেপারী ওরফে বদের (৪২)। গত শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে পেশাগত প্রয়োজনে তিনি বাড়ি থেকে বের হন। ভাড়ায়চালিত এক মোটরসাইকেলে করে গোয়ালন্দ পৌর শহরে যান। সেখান থেকে রাত পৌনে ৯টার দিকে বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে মাহেন্দ্রযোগে দৌলতদিয়া ঘাটের মনোরমা সিনেমা হলের সামনে আসেন। অজ্ঞাতপরিচয় একদল দুর্বৃত্ত তাঁকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। তাঁর মোবাইল ফোনসেটটি বন্ধ ছিল। স্বামীর সন্ধান পেতে স্ত্রী গত সোমবার গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। গতকাল নইমদ্দিন খাঁরপাড়া গ্রাম এলাকার পদ্মা নদীর পাড়ে তাঁর লাশ ভেসে আসে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

গতকাল দুপুরে চর দৌলতদিয়া গ্রামে নিহতের বাড়ি গিয়ে দেখা যায়, পরিবার ও প্রতিবেশীদের মধ্যে কান্নার রোল পড়েছে। উপস্থিত অনেকে সান্ত্বনাসূচক কথা বলেও তাদের শান্ত করতে পারছে না। এ সময় স্ত্রী আফরোজা বেগম ছেলেকে বুকে জড়িয়ে ধরে আর্তনাদ করে বলছেন, ‘আমি আর কিছুই চাই না। তোমরা শুধু আমার স্বামীকে ফিরিয়ে দাও। ওকে ছাড়া আমি বাঁচব না। ’

নিহতের বৃদ্ধা মা মইফুল বিবি ছেলে হারানোর শোকে হতবিহ্বল হয়ে পড়েছেন। বাড়ির পাশের রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী মোটরসাইকেলের শব্দ শুনতে পেলে বুক চাঁপড়িয়ে চিৎকার করে বলছেন, ‘তোমরা সবাই চুপ করো। আমার কইলজার টুকরা বদের বাড়ি আইতাছে। ’

নিহতের ছেলে স্থানীয় শাহাজদ্দিন মণ্ডল ইনস্টিটিউটের দশম শ্রেণির ছাত্র মঈন বেপারী বলেন, ‘আব্বুর কোনো শত্রু ছিল না। কোনো অন্যায়ও সে করেনি। তবে যারা তাকে মেরেছে, আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। ’

গোয়ালন্দঘাট থানার ওসি মির্জা আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘তৌহিদুজ্জামানকে গুলি করে হত্যার পর দুর্বৃত্তরা পদ্মা নদীতে লাশ ফেলে পালিয়েছে। তবে হত্যাকাণ্ডের কারণ এখনো জানা যায়নি। ’ এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় একটি হত্যা মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

 


মন্তব্য