kalerkantho

বুধবার। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ১০ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সখীপুরে সড়কে গাছ ফেলে গণডাকাতি

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সখীপুর-নলুয়া-টাঙ্গাইল সড়কে গত শনিবার রাতে গাছ ফেলে যানবাহনে গণডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাতরা অর্ধশত যাত্রীর কাছ থেকে মোবাইল, গয়না, টাকাসহ প্রায় সাত লাখ টাকার মালামাল লুটে নেয় বলে অভিযোগ উঠেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে ২০-২৫ জনের একটি সশস্ত্র ডাকাতদল সখীপুর-নলুয়া-টাঙ্গাইল সড়কের বুড়িবাইদ সেতুর কাছে গাছ ফেলে ব্যারিকেড দেয়। এ সময় তারা মোটরসাইকেল, ভ্যান, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ট্রাক, পিকআপ ভ্যান ও ইজিবাইক থামিয়ে যাত্রীদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মোবাইল, গয়না ও টাকা লুট করে। যাত্রীদের আর্তচিৎকারে স্থানীয় লোকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে এগিয়ে এলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

ডাকাতরা নলুয়া গ্রামের খোরশেদ আলমের ৬৫ হাজার ও তাঁর ছেলে রুবেলের কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন, একই গ্রামের পোল্ট্রি ফিড ব্যবসায়ী আলাল খানের ২৫ হাজার টাকা, তাঁর স্ত্রী ও মেয়ের সঙ্গে থাকা সোনার গয়না, দাড়িয়াপুর এসএ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল আজিজের পাঁচ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন, বাসাইল উপজেলার এক মোটরসাইকেল আরোহীর দেড় লাখ টাকা, বেড়বাড়ী গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী ধীরেন্দ্র সরকারের ১০ হাজার টাকাসহ অন্যান্য যানবাহন থেকে টাকাসহ প্রায় সাত লাখ টাকার মালামাল লুট করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অন্যদিকে একই রাতে উপজেলার নলুয়া-দেওদীঘি সড়কের ইউরেকা স্কুল মোড়ে রাস্তায় গাছ ফেলে একইভাবে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায় বলে এলাকাবাসী জানায়। এদিকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান এ কে এম আতিকুর রহমান আতোয়ার বলেন, মাঝেমধ্যেই ওই সড়কে ডাকাতির ঘটনা ঘটে থাকে। তিনি রাতে পুলিশের টহল জোরদারের দাবি জানান।

সখীপুর থানার ওসি মাকছুদুল আলম বলেন, ‘ডাকাতির খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে যাই। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। ’


মন্তব্য