kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গুরুদাসপুরে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা

এজাহারে চেয়ারম্যানের নাম, মামলা নেয়নি পুলিশ

ভয়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে নির্যাতিত পরিবার

নাটোর প্রতিনিধি   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



নাটোরের গুরুদাসপুরে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে থানায় এজাহার দেওয়া হলেও মামলা নেয়নি পুলিশ। এজাহারে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শওকত রানা লাবুর নাম থাকায় পুলিশ মামলা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবারের।

এদিকে এজাহার থেকে চেয়ারম্যানের নাম বাদ দিতে ছাত্রীর পরিবারকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নিরাপত্তার অভাবে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে পরিবারটি।

থানায় দেওয়া অভিযোগ ও নির্যাতিত পরিবার সূত্রে জানা যায়, নাজিরপুর ইউনিয়নের দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে বৃ-গরিলা গ্রামের আয়ুব আলীর ছেলে সাজেদুল ইসলাম (২২) বিদ্যালয়ে যাতায়াতের সময় উত্ত্যক্ত করতেন। গত শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সাজেদুল ছাত্রীটির বাড়িতে গিয়ে তাকে ধর্ষণচেষ্টা চালান। এ সময় ছাত্রীর পরিবার ও প্রতিবেশীরা সাজেদুলকে আটক করে। রাত সাড়ে ১১টার দিকে ইউপি চেয়ারম্যান শওকত রানা লাবু তাঁর লোকজন নিয়ে আপস করার কথা বলে সাজেদুলকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। পরে চেয়ারম্যান বিষয়টিকে আর পাত্তা দেননি।

এ ঘটনায় গত সোমবার ছাত্রীটির মা বাদী হয়ে সাজেদুল ইসলাম, চেয়ারম্যান শওকত রানা লাবু, তাঁর অনুগত বয়েন উদ্দিন (৩৬), আব্দুল মজিদ (৪৫), মো. মোস্তফা (২৮), দাউদ আলী ও রাশিদুল ইসলামসহ আরো ৮-১০ জনকে অভিযুক্ত করে গুরুদাসপুর থানায় এজাহার দাখিল করেন। কিন্তু পুলিশ মামলাটি রেকর্ড করেনি।

ওসি দিলীপ কুমার দাস জানান, একজন জনপ্রতিনিধিকে আসামি করায় এজাহারটি আমলে নেওয়া হয়নি।

চেয়ারম্যান শওকত রানা বলেন, ওসির অনুরোধে তিনি রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। উভয় পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের (ছাত্রী-সাজেদুল) বিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু মেয়ের বয়স কম থাকায় তিনি বিয়েতে মত দেননি। পরে স্থানীয় কিছু ব্যক্তির মাধ্যমে প্রভাবিত হয়ে এজাহারে তাঁর নাম দেওয়া হয়েছে।

ওই ছাত্রীর মা অভিযোগ করেন, শুরু থেকেই চেয়ারম্যান শওকত রানা লাবু তাঁদের বিপক্ষে অবস্থান করছেন। এজাহার থেকে তাঁর নাম বাদ দেওয়ার জন্য তাঁদের নানাভাবে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। নিরাপত্তার কারণে তাঁরা বাড়িতে থাকতে পারছেন না।


মন্তব্য