kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনা

রাজারহাটে শোকের বাড়ি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মা-বাবাকে হারিয়ে শোকের সাগরে ভাসছে ১১ বছরের ঝরনা। তার উদ্দেশে মায়ের শেষ কথা, ‘ভালো করে লেখাপড়া করিস।

কারো সাথে ঝগড়া করিস না। ’ এই বলে বলে সে কাঁদছে। আর দুই বছরের ছোট তার একমাত্র ভাই মৃণাল যেন নির্বাক। কাঁদতেও ভুলে গেছে। খাওয়াদাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার দাসপাড়া গ্রামের গার্মেন্টকর্মী সুমন মোহন্ত ও তাঁর স্ত্রী মিনি মোহন্ত দুই সন্তানকে বাড়িতে রেখে কর্মস্থল ঢাকায় যাওয়ার পথে গত শনিবার সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান। সঙ্গে মারা যায় মিনির ভাগ্নে ৯ বছরের আনন্দও। এদিকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত কুড়িগ্রামের একই পরিবারের তিনজনসহ পাঁচজনের দাফন ও শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে। ওই ঘটনায় নিহত অন্যরা হলো উলিপুর উপজেলার কুটিপাড়া গ্রামের মমিনুলের স্ত্রী সালমা আক্তার (৩০) ও তাঁর ছেলে আরিফ (৯)।

গতকাল রবিবার সকালে নিহতদের লাশ এলাকায় পৌঁছালে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। দরিদ্র পরিবারগুলোতে দেখা দেয় মাতম।

সরেজমিন রাজারহাটের দাসপাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, সুমনের মা লক্ষ্মী রানী বারান্দায় পড়ে কাঁদছেন। শনিবার ছেলের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর থেকে খাবার খাচ্ছেন না।


মন্তব্য