kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রসূতি ও নবজাতকের মৃত্যু

দাউদকান্দিতে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার বেসরকারি খিদমা হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় মা ও নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মৃতরা হলো শাহিনা আক্তার (৩২) ও তাঁর নবজাতক মেয়ে।

শাহিনা দক্ষিণ সতানন্দী গ্রামের প্রবাসী সেলিম মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, বুধবার রাতে শাহিনাকে গৌরীপুর বাজারের খিদমা হাসাপতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ১২ হাজার টাকায় সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারে সন্তান প্রসব করাতে চুক্তিবদ্ধ হয়। ডা. হোসনেয়ারা অস্ত্রোপচার করেন। অস্ত্রোপচারের সময় সন্তানের মৃত্যু হয়। প্রসূতির রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়। পথেই গৃহবধূর মৃত্যু হয়। স্বজনরা সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে ভাঙচুরের চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে স্বজনদের চাপের মুখে পুলিশ লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

শাহিনার মা ফয়জুন্নেছা বলেন, ‘হাসপাতালের মালিককে বলেছিলাম, ভালো ডাক্তার দিয়ে আমার মাইয়ার ডেলিভারি করাইতে। একজন নার্স আর হাতুড়ে ডাক্তার দিয়ে সিজার কইরা আমার মেয়ে ও নাতনিকে মারছে। ’

হাসপাতালের মালিক দেওয়ান মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমি ঢাকায় চিকিৎসাধীন। হাসপাতালে এলে বলতে পারব কী কারণে এ দুর্ঘটনা হয়েছে। ’

গৌরীপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) তপন কুমার বাগচী বলেন, ‘লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা পাঠিয়েছি। অভিযোগ পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

 


মন্তব্য