kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ট্রলারের ধাক্কায় সেতু ভেঙে খালে

জিয়ানগরে মাছ ব্যবসায়ীরা বিপাকে

পিরোজপুর প্রতিনিধি   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পিরোজপুরের জিয়ানগর উপজেলার পাড়েরহাট বাজার ও বাদুরা মত্স্যবন্দরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী সেতুটি গত বুধবার সকালে ট্রলারের ধাক্কায় ভেঙে পড়েছে।

সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এফভি মায়ের দোয়া নামের একটি মাছ ধরা ট্রলার পাড়েরহাট খালের সেতুর নিচ থেকে বরফ আনতে যায়।

সামান্য ধাক্কা লাগায় সেতুটি ওই ট্রলারটির ওপরে ধসে পড়ে। ট্রলারের মাঝি কামাল হোসেনের (৩২) মাথায় মারাত্মকভাবে আঘাত লাগে। তাঁকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে পিরোজপুর ফায়ার সার্ভিস। এরপর স্থানীয়দের সহযোগিতায় পিরোজপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে খুলনা হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ছাড়া আহত হয়েছেন ওই ট্রলারের কর্মচারী মিজান ও ইউসুফ হাওলাদার। সেতু ভাঙায় বাদুরা মত্স্যবন্দরের সঙ্গে স্থলপথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিদিন প্রায় কোটি টাকার লেনদেন হয়ে থাকে এ বন্দরে। সেতু ভেঙে পড়ায় বর্তমান ইলিশ মৌসুমে এই বন্দর থেকে হাজার হাজার টন মাছ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা বন্ধ রয়েছে। ফলে ব্যবসায়ীরা মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়েছেন।

এ বিষয়ে বাদুরা মত্স্যজীবী সমাজকল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মোস্তফা আকন বলেন, ‘এই সেতু স্থলপথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। এটা ভেঙে পড়ায় আমরা কোথাও মাছ সরবরাহ করতে পারছি না। আমাদের ব্যবসা বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। ’

স্থানীয় বাসিন্দা মুরাদ খান জানান, সেতুর খুঁটির সঙ্গে বড় বড় পণ্যবাহী ভারী ট্রলার বেঁধে রাখা হতো। এতে খুঁটিগুলো দুর্বল হয়েছিল। প্রায় তিন মাস আগে একটি ঠিকাদারিপ্রতিষ্ঠান সেতুটি মেরামত করে। যা খুবই নিম্নমানের ছিল।

পিরোজপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের লিডার মো. গোলাম রসুল বলেন, ‘৮-১০ জনের একটি দল নিয়ে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করি। ’

পিরোজপুরের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রফিকুল হাসান বলেন, ‘সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় প্রায় দুই মাস আগে প্রায় ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কার করা হয়। ’


মন্তব্য