kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মাগুরা ও সাতক্ষীরায় ভিজিএফের চাল বিক্রি

মাগুরা ও সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেনের বিরুদ্ধে দুস্থদের জন্য বরাদ্দ করা ভিজিএফের ২২ বস্তা চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। এলাকাবাসীর অভিযোগের পর স্থানীয় দুই ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে রবিবার সকালে ২২ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে একটি বিশেষ টিম।

এ ঘটনায় নহাটা ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেনসহ ওই দুই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত চেয়ারম্যান নহাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।

এ ব্যাপারে মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিন হোসেন জানান, ঈদুল আজহা উপলক্ষে গত শনিবার থেকে নহাটা ইউনিয়নের এক হাজার ৬২৭ জন দুস্থর মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ১০ টাকা কেজি করে ভিজিএফের চাল বিতরণ শুরু হয়। শনিবার কিছু চাল বিতরণ করা হয়। রবিবার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হোসেনের মাধ্যমে বাকি চাল বিতরণের কথা ছিল। কিন্তু এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পাওয়া যায়, চেয়ারম্যান গত শনিবার রাতেই কিছু চাল আনন্দ ও সমীর নামের স্থানীয় দুই ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন। এমন সংবাদের ভিত্তিতে রবিবার সকালে সমীর ও আনন্দের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২২ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরো জানান, ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে চেয়ারম্যান আলী হোসেন মিয়া, ব্যবসায়ী সমীর ও আনন্দের নামে মামলা হয়েছে। চাল উদ্ধারের খবর পেয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ও দুই ব্যবসায়ী পালিয়েছেন। পুলিশ তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে।

এদিকে সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের একটি দোকান থেকে ভিজিএফের ২০০ কেজি চাল উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল রবিবার দুপুরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এসব চাল উদ্ধার করে। তবে ঘটনাস্থল থেকে কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। এর আগে গত শুক্রবার দেবহাটা উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়ন থেকে ভিজিএফের ৬৫০ কেজি চাল উদ্ধার করা হয়েছিল।

স্থানীয় লোকজন জানায়, নলতা ইউনিয়নে গরিব ও দুস্থদের মধ্যে বিতরণের জন্য ৫৫ বস্তা চাল ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবুল কাসেম ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের সঙ্গে যোগসাজশ করে আজগর আলী নামের এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেন। আজগর আলী চালগুলো স্থানীয় লোকজনের কাছে বিক্রি করেন। পরে এলাকাবাসী বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশকে জানালে তারা অভিযান চালিয়ে ২০০ কেজি চাল উদ্ধার করে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার দেবহাটা উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে ভিজিএফের ৬৫০ কেজি চাল উদ্ধার করা হয়েছিল। এ সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করা হয়।


মন্তব্য