kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কক্সবাজারে ইয়াবাবাহী পিকআপ ছিনতাইচেষ্টা

চালকের সঙ্গে ধস্তাধস্তি গাড়ি খাদে, নিহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ইয়াবাবাহী একটি পিকআপ (স্থানীয়ভাবে ছারপোকা হিসেবে পরিচিত) দুর্ঘটনায় নারীসহ তিনজনের প্রাণহানি ঘটেছে। গতকাল শনিবার সকালে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার ইনানীতে মেরিন ড্রাইভ সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তিনজনের মধ্যে একজনের পরিচয় মিলেছে। তিনি হলেন জালিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) মনখালী গ্রামের সাবেক সদস্য ছিদ্দিক আহমদের ছেলে মো. জিয়াউল হক (২৭)। চালক ও নারীর পরিচয় পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টেকনাফ থেকে ইয়াবার চালান নিয়ে এক নারী ও গাড়িচালক মেরিন ড্রাইভ সড়ক হয়ে পিকআপ নিয়ে কক্সবাজার আসছিলেন। গাড়িটি উখিয়ার মনখালীতে পৌঁছলে জিয়াউল হকের নেতৃত্বে একটি ‘ইয়াবা শিকারি দল’ মোটরবাইক নিয়ে ধাওয়া করে। একপর্যায়ে মোটরবাইক থেকে জিয়াউল পিকআপে ওঠে। চলন্ত পিকআপে চালকের সঙ্গে ধস্তাধস্তির সময় গাড়িটি ছোট ইনানীতে এসে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে তিনজন নিহত হন। স্থানীয় লোকজন দুর্ঘটনাকবলিত পিকআপ থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা লুট করে।

জালিয়া পালং ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, মেরিন ড্রাইভ মিয়ানমারে উৎপাদিত ইয়াবা পাচারের একটি নিরাপদ সড়ক হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহৃত হচ্ছে। এ কারণে এ সড়কে ‘ইয়াবা শিকারি’ দলও প্রায়ই গাড়ি থামিয়ে ইয়াবা ছিনতাই করে থাকে।

ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপরিদর্শক (এসআই) আরিফ বলেন, ‘দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। শুনেছি একদল দুর্বৃত্ত গাড়িটিকে ধাওয়া করার কারণে দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ বিধ্বস্ত গাড়ি থেকে তিন হাজারের মতো ইয়াবা উদ্ধার করে। ’

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। ’


মন্তব্য