kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আওয়ামী লীগ নেতার পেটে দুস্থদের চাল!

পটুয়াখালী প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ঈদে দুস্থদের জন্য বরাদ্দ করা এক হাজার কেজি চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে বাউফল উপজেলার বাউফল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান ওরফে লিটু মোল্লার বিরুদ্ধে। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে।

এদিকে চাল না পেয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে দুস্থ লোকজন।

জানা গেছে, বাউফল সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. জসীম উদ্দিন মোল্লা দুস্থদের মধ্যে বিতরণের জন্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান ওরফে লিটু মোল্লাকে ১০০টি কার্ড দেন। কিন্তু লিটু ওই কার্ড দুস্থদের মধ্যে বিতরণ না করে গত শুক্রবার বিকেলে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রতি কার্ডের বিপরীতে ১০ কেজি হারে ১০০০ কেজি চাল নিয়ে যান। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজন শুক্রবার রাতেই বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহামুদ জামানকে জানান। পরে ইউএনও ওই ইউনিয়নের অলিপুরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি দোকান ও একটি বসতঘর থেকে ২০০ কেজি চাল উদ্ধার করেন। এ সময় মো. খলিল প্যাদ্যা ও মো. বাসেত সিকদার নামের দুজনকে আটক করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এ ছাড়া শনিবার উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা ইকবাল হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন ইউএনও। এ ব্যাপারে বাউফল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জসীম উদ্দিন মোল্লা বলেন, ‘দলীয় নেতাকর্মীদের মাধ্যমে দুস্থদের জন্য ১০০ কার্ড ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিটু মোল্লাকে দেওয়া হয়েছে। তিনি ওই কার্ডের চাল নিয়ে গেছেন। ’

অভিযুক্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান ওরফে লিটু মোল্লা বলেন, ‘আমি দলীয় কর্মীদের কার্ড দেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছি। কিন্তু আমি কোনো চাল কিংবা কার্ড নিইনি। এটি মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র। ’

ইউএনও মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহামুদ জামান বলেন, বিভিন্ন লোকজনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে চার বস্তায় ২০০ কেজি চাল জব্দ করা হয়েছে। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে যারা অপরাধী প্রমাণিত হবে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য