kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বড়াইগ্রামে জমি দখল

পৌর মেয়রকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

নাটোর প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সরকারি জমি দখলের অভিযোগে নাটোরের বড়াইগ্রাম পৌরসভার মেয়রকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। পৌরসভার মৌখড়া বাজারে প্রায় কোটি টাকা মূল্যের জমিতে মাটি ভরাট করা অবস্থায় খবর পেয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাঁকে ওই নোটিশ দেয়।

একই সঙ্গে ওই জমিতে মাটি ভরাট বন্ধ রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়।

এলাকাবাসী জানায়, মৌখাড়া মৌজার ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত ৫৮ নম্বর দাগে দশমিক ১৭ একর জমি দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই ভাষাসৈনিক আসেক আলী মাস্টার ভোগ দখল করে আসছেন। এত দিন সরকার বা কোনো ব্যক্তি ওই জমি দখলে আসেনি। সম্প্রতি আসেক আলী মাস্টার ইন্তেকাল করেন। এদিকে বড়াইগ্রাম পৌর ভূমি অফিস নির্মাণের জন্য দশমিক ১৫ একর জমি চেয়ে আবেদন জানালে উপজেলা ভূমি অফিস থেকে ওই জমির প্রস্তাব পাঠানো হয়। তবে সরকার ওই জমি দখলে নিচ্ছে জেনে আসেক আলী মাস্টারের স্বজনরা কোনো আপত্তি তোলেনি।

গত শনিবার ওই জমিতে মাটি ভরাট শুরু করা হয়। খবর নিয়ে জানা যায়, সরকারের পক্ষ থেকে নয়, বরং মেয়র বারেক এখানে ব্যক্তিগত মার্কেট নির্মাণের জন্য মাটি ভরাট করছেন।

মৌখারা বাজারের ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম জানান, মৌখারা বাজার এলাকায় এখন প্রতি শতক জমি পাঁচ থেকে আট লাখ টাকা দরে বেচাকেনা হয়। সেই হিসাবে ওই ১৭ শতক জমির দাম এক কোটি টাকার বেশি হয়।

খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে বড়াইগ্রাম পৌর ভূমি অফিসের তহশিলদার আব্দুল লতিফ ঘটনাস্থলে গিয়ে জমি দখলের সত্যতা পান। তখন তিনি মৌখিকভাবে ভরাট বন্ধের জন্য মেয়র আব্দুল বারেককে অনুরোধ করেন। একই সঙ্গে বিষয়টি সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাসরিন বানুকে অবহিত করেন।

তবে মেয়র আবদুল বারেক ওই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘ব্যক্তিগত কাজে নয়, ফায়ার সার্ভিস নির্মাণের জন্য ওই জমিতে মাটি ভরাট করাচ্ছিলাম। ’ সরকারি কাজের জন্য ব্যক্তিগত টাকায় মাটি ভরাটের কারণ জানতে চাইলে তিনি কোনো জবাব দিতে পারেননি।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাসরিন বানু বলেন, সরকারি সম্পত্তি দখল করার কোনো সুযোগ নাই। গত বৃহস্পতিবার সরকারি সম্পত্তি দখলের কারণে কেন আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে না—এর জবাব চেয়ে মেয়র আব্দুল বারেককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে মাটি ভরাট বন্ধেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, আব্দুল বারেক গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে বিজয়ী হয়ে এ বছরের মার্চে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

 


মন্তব্য