kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চাঁদা না পেয়ে চার বেপারীকে মারধর

চকরিয়ায় ফাঁকা গুলি

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নের ইলিশিয়া পশুর হাটে চাঁদা না দেওয়ায় কয়েকজন গরু বিক্রেতাকে মারধর করা হয়েছে। এ সময় সশস্ত্র চাঁদাবাজ-সন্ত্রাসীরা পর পর চার রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়লে গরু ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

ভয়ে অনেকে হাট থেকে গরু নিয়ে চলে গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহত হন সাহারবিল ইউনিয়নের কোরালখালী এলাকার গরু ব্যবসায়ী সাহাব উদ্দিন, মোহাম্মদ মিজান ও জমির হোছাইন। এ সময় তাঁদের বাঁচাতে গেলে হামলার শিকার হন ব্যবসায়ী নবীর হোছাইন।

হামলার শিকার সাহাব উদ্দিন জানান, ইলিশিয়া বাজারে বিক্রির জন্য নিজের পালিত কয়েকটি গরু নিয়ে যান তিনি। কিন্তু স্থানীয় একদল সন্ত্রাসী গরু বিক্রেতাদের কাছে মোটা অঙ্কের চাঁদা চেয়ে বসে। এর প্রতিবাদ করায় তিনিসহ চারজন ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত করে চক্রটি।

ইলিশিয়ার কোরবানির পশুর হাটের পরিচালক শাহনেওয়াজ ও খলিলুর রহমান জানান, কয়েক দিন ধরে স্থানীয় চাঁদাবাজ-সন্ত্রাসীচক্র কোরবানির পশুর হাটে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে চাঁদা আদায়ের চেষ্টা করছিল। গতকাল কয়েকজন গরু বিক্রেতার কাছ থেকে চাঁদা না পেয়ে তারা কয়েকটি ফাঁকা গুলি ছোড়ে। তাতে হাটে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে অনেক ব্যবসায়ী গরু নিয়ে হাট থেকে চলে যান। বিষয়টি পাশের বদরখালী নৌ পুলিশ ফাঁড়িতে জানানো হয়েছে।

চকরিয়া থানার ওসি মো. জহিরুল ইসলাম খান বলেন, খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে বদরখালী নৌ ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি পশুর হাটগুলোতে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।


মন্তব্য