kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আদালতে স্বামীর জবানবন্দি

গণধর্ষণের পর স্ত্রীর গলা কাটা হয়

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



স্ত্রীর বেপরোয়া চলাফেরা সহ্য করতে না পেরে ক্ষিপ্ত স্বামী অন্যদের নিয়ে গণধর্ষণের পর জবাই করে তাঁকে। ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মহেশপুর গ্রামের নয়ন মিয়া (৪৫) গত রবিবার বিকেলে ময়মনসিংহ আদালতে জবানবন্দিতে এ কথা বলে।

ময়মনসিংহের সহকারী পুলিশ সুপার (গৌরীপুর সার্কেল) মো. আক্তারুজ্জামান আদালতের বরাত দিয়ে বলেন, নয়ন স্ত্রী ও সন্তান থাকতেও প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করে দ্বিতীয় স্বামীর দেওয়া তালাকপ্রাপ্ত বেদেনা আক্তারকে (২৮)। ময়মনসিংহের খালেদা ইয়াসমিনের চতুর্থ আমলি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে সে। আদালত নয়ন ও তার সহযোগী লিটনকে (৩০) জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য, গত শুক্রবার  ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মহেশপুর গ্রামের আছেন আলীর মেয়ে বেদেনার লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন নয়নকে আটকের পর সে পুলিশকে জানায়, বিপথগামী স্ত্রীকে কিছুতে বাগে আনতে পারছিল না সে। স্ত্রীর উচ্ছৃঙ্খল চলাফেরার কারণে পরিবার ও সমাজে প্রতিনিয়ত হেয় হচ্ছিল। প্রতিবাদ করলে তাকে ছেড়ে মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দিতেন।


মন্তব্য