kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সোনারগাঁয় দুই পক্ষের সংঘর্ষে টেঁটাবিদ্ধসহ আহত ১৫

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



জমি নিয়ে বিরোধের জেরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার দৌলরদী গ্রামে গত শুক্রবার রাতে ও গতকাল শনিবার সকালে দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় উভয় পক্ষের বেশ কয়েকটি বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।

সংঘর্ষে টেঁটাবিদ্ধ ও হাতকাটাসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে আহত ১৫ জন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। সংঘর্ষের ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, উপজেলার বারদী ইউনিয়নের দৌলরদী গ্রামের আলী আকবরের সঙ্গে একই গ্রামের সোলায়মান মিয়ার দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে গত শুক্রবার রাতে দুজনের মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। এরই জের ধরে আলী আকবরের নেতৃত্বে ২০-২৫ জনের একদল বাহিনী টেঁটা, রামদা, চায়নিজ কুড়াল, লাঠি ও লোহার রড নিয়ে সোলায়মান মিয়ার পরিবারের ওপর হামলা চালায়। এ সময় জাহাঙ্গীর, সম্রাট মিয়া ও ফজলুল হকসহ পাঁচজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে হামলাকারীরা। একপর্যায়ে আহতদের বাড়িঘরে ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয়।

এ ঘটনার জেরে শনিবার সকালে সোলায়মান মিয়ার ২০-৩০ জন সমর্থক টেঁটা, রামদা, চায়নিজ কুড়াল, লাঠি ও লোহার রড নিয়ে আলী আকবরের সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় আলী আকবর, তাঁর স্ত্রী  শাহিদা বেগম, জসিম মিয়া, সিরাজউদ্দিন, আক্তার হোসেন, আহম্মেদ আলী ও সাখাওয়াত মিয়াসহ ১০ জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে হামলাকারীরা। হামলায় আলী আকবর টেঁটাবিদ্ধ ও জসিম মিয়ার হাত কেটে যায়।


মন্তব্য