kalerkantho


চৌদ্দগ্রামে গুলি কোপে যুবলীগকর্মী খুন

দুই স্থানে আরো দুই খুন, এক লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে স্থানীয় এক যুবলীগকর্মীকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। বগুড়ায় এক শিশুকে কুপিয়ে মেরেছে মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তি। গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া ফেনী সদরে যৌতুকের জন্য এক নববধূকে গলাটিপে হত্যার পর  লাশ ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে গেছে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে :

কুমিল্লা : বিগত ইউপি নির্বাচনে বিরোধিতাকে কেন্দ্র করে চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় আবু বকর ছিদ্দিক প্রকাশ রানা নামের এক যুবলীগকর্মীকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। এ সময় বশির নামের একজন গুরুতর আহত হন। গত শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। রানা উপজেলার গুর্নিশকরা গ্রামের শহিদ উল্লাহর ছেলে। পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গতকাল শনিবার সকালে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে পাঠিয়েছে। বশির একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বশির ও স্থানীয় লোকজন জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কুলিয়ারা ব্রিজের ওপর বসে গল্প করছিলেন যুবলীগকর্মী রানা, বশির ও তাঁদের কয়েকজন বন্ধু। হঠাৎ গত ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম মোস্তফা বিপ্লবের নেতৃত্বে একদল যুবক সেখানে এসে তাঁদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। একপর্যায়ে হামলাকারীরা তাঁদের ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায়। এতে রানা ও বশির মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাঁদের চিৎকারে স্থানীয়দের এগিয়ে আসতে দেখে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ সময় আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রানাকে মৃত ঘোষণা করেন। ’

ফেনী : যৌতুকের জন্য সদর উপজেলার কাটা মোবারক ঘোনা এলাকায় নার্গিস আক্তার নামের এক নববধূকে গলাটিপে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার রাতে থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে নার্গিসের শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে। স্থানীয় ও নববধূর বাবার বাড়ির লোকজন জানায়, মাত্র চার মাস আগে আবু ইউছুপের সঙ্গে নার্গিস আক্তারের বিয়ে হয়। গত মাস থেকে স্ত্রীর কাছে যৌতুক দাবি করছিল ইউছুপ। কিন্তু যৌতুক দিতে অস্বীকার করায় নার্গিসের ওপর নির্যাতন চালায় ইউছুপ ও তার পরিবার। গত বৃহস্পতিবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন মিলে নার্গিসকে গলাটিপে হত্যা করে লাশ ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।

বগুড়া : সদর উপজেলায় মলি খাতুন নামের সাড়ে তিন বছরের এক মেয়েকে কোদাল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যক্তি। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার দুপুরে উপজেলার ছোট টেংরা গ্রামে। স্থানীয় লোকজন ওই ব্যক্তিকে গণপিটুনির পর পুলিশে দিয়েছে। মলি ওই গ্রামের আজিজার রহমানের মেয়ে। স্থানীয়রা জানায়, মলি খাতুন গ্রামের একটি রাস্তায় প্রতিবেশী ছেলেমেয়েদের সঙ্গে খেলছিল। মানসিক ভারসাম্যহীন ওই ব্যক্তি হঠাৎ পাশের জমিতে পড়ে থাকা একটি কোদাল নিয়ে এসে মলির ঘাড়ে ও মাথায় কোপ দেয়। এ দৃশ্য দেখে গ্রামের লোকজন ছুটে এসে গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে গ্রামবাসী ওই ব্যক্তিকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। এ ব্যাপারে সদর থানার এসআই আব্দুর রাজ্জাক জানান, গণপিটুনিতে গুরুতর আহত হওয়ায় ওই ব্যক্তির নাম-পরিচয় জানা যায়নি। গ্রামের লোকজনও জানাতে পারেনি।

গাইবান্ধা : পলাশবাড়ী উপজেলার রাইগ্রাম এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের পাশ থেকে আশরাফ আলী নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ। আশরাফ বগুড়ার সারিয়াকান্দির মানিকদার গ্রামের হাফেজ উদ্দিনের (মৃত) ছেলে।


মন্তব্য