kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শিশু ও কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ, আটক ১

চাঁদপুর ও হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে শিশু ও হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের দৃশ্য ইন্টারনেটে ছাড়ার হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করেছে কথিত প্রেমিক।

ফরিদগঞ্জে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার ঘটনায় গতকাল শুক্রবার সকালে থানায় নারী ও নির্যাতন দমন আইনে মামলা করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত ইকরামকে (১৬) আটক করে পুলিশ। সে লড়াইচর গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে ও স্থানীয় একটি মাদ্রাসার দাখিল শ্রেণির ছাত্র।

শিশুটির স্বজনরা জানান, ধর্ষণের পর কান্না শুনে শিশুটিকে (৭) স্বজনরা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে রাতেই তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। গতকাল সকালে শিশুটির অবস্থার আরো অবনতি ঘটলে তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আবু রায়হান জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে শিশুটি আশঙ্কামুক্ত নয়। বৃহস্পতিবার রাতেই গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. ফাতেমা বেগমের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি মেডিক্যাল বোর্ড শিশুটির অস্ত্রোপচার করে। কিন্তু ভোররাতের দিকে তার শারীরিক অবনতি ঘটতে শুরু করে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মাহবুবুর রহমান মোল্লা চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে নির্যাতিত শিশু ও তার মা-বাবার সঙ্গে কথা বলেন। ওসি মো. আবুল কালাম জানান, আজ শনিবার অভিযুক্ত ইকরামকে আদালতে হাজির করা হবে।

চুনারুঘাটে ধর্ষণে অভিযুক্তের নাম সোহান মিয়া (২২)। সে উপজেলার শ্রীকুটা গ্রামের আব্দুল হান্নানের (মৃত) ছেলে।

গতকাল স্থানীয় সূত্র জানায়, সোহান মিয়ার সঙ্গে বেশ কিছুদিন আগে এক কলেজ ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কয়েক দিন আগে সোহান প্রেমিকাকে কৌশলে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের গহিন অরণ্যে নিয়ে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ ও এর ভিডিও ধারণ করে। পরে প্রেমিকার কাছ থেকে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছাড়ার হুমকি দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করে সোহান। একপর্যায়ে ভিডিওটি ফাঁস হয়ে যায়। অভিযুক্ত সোহানের শাস্তির দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

চুনারুঘাট থানার ওসি নির্মলেন্দু চক্রবর্তী জানান, এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ তাঁরা পাননি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য