kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কাপাসিয়ায় মা ও দুই ছেলেকে কোপ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার পেওরাইট গ্রামে গত বুধবার রাতে বিরোধের জেরে মা ও তাঁর দুই ছেলেকে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা। গুরুতর অবস্থায় দুজনকে কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং একজনকে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন ওই গ্রামের আবদুল খালেকের স্ত্রী রেখা বেগম (৫৫), দুই ছেলে মোস্তফা কামাল (৩৫) ও সাইফুল ইসলাম (২২)।

দুই ভাই রেফ্রিজারেটর মিস্ত্রি। পাশের তরগাঁও বাজারে তাঁদের দোকান রয়েছে। তাঁদের বাবা আবদুল খালেক জানান, তাঁর ভাই আবদুল জব্বারসহ প্রতিবেশী কয়েকজনের সঙ্গে তাঁদের বিরোধ ছিল। গত বুধবার রাত প্রায় ১১টার দিকে দোকান থেকে বাড়ি ফিরছিল তাঁর দুই ছেলে। ওই সময় ওত পেতে থাকা একই গ্রামের বকুল, চান মিয়া, লুলু মিয়া, মনির হোসেন, দুলাল, সুজন, আলফাজ, লাল মিয়া, আবদুর রাজ্জাক, আবুল ফয়েজসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো চার-পাঁচজন তাঁর দুই ছেলের পথ রোধ করে। একপর্যায়ে তারা পথে মোস্তফা ও সাইফুলকে মারধর  করে। চিত্কার করায় তাঁর দুই ছেলেকে তুলে নিয়ে যায় তারা। বাড়ি থেকে প্রায় ৪০০ গজ দূরে মনির হোসেনের বাড়িতে নিয়ে একটি কক্ষে আটকে দুজনকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে সন্ত্রাসীরা। একপর্যায়ে শাবল দিয়ে মোস্তফার দুই হাত ও দুই পা থেঁতলে দেয় তারা। টের পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় মুমূর্ষু অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান তাঁরা। তিনি অভিযোগ করেন, এরপর সন্ত্রাসীরা ফের তাঁর বাড়িতে হামলা চালায়। সেখানে সন্ত্রাসীরা তাঁর স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কোপায়। স্থানীয়রা টের পাওয়ায় পালিয়ে যায় তারা। পরে গ্রামবাসী আহতকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় গতকাল সন্ধ্যায় আবদুল খালেক কাপাসিয়া থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। কাপাসিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মঞ্জুদ্দোহা বলেন, ‘খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। মামলা হবে। ’


মন্তব্য