kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


প্রতিদ্বন্দ্বীকে ফাঁসাতে অপহরণ নাটক

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় এক ব্যক্তি নিখোঁজের পর বাড়ি ফিরে এসেছেন। স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে ফাঁসাতে তিনি অপহরণ নাটক সাজিয়েছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সাদিপুর ইউনিয়নের চৌরাপাড়া গ্রামের মৃত আহাদ বক্সের ছেলে ও ইউপি সদস্য রফিক মিয়া গত ৩০ মার্চ রাজধানীর ঢাকার শনির আখড়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হন। পরে ওই দিন বাড়ি না ফেরায় তাঁর পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে কোনো সন্ধান পায়নি। পরের দিন সকালে রফিক তাঁর মোবাইল ফোন থেকে চাচাতো ভাই আক্কেল আলীর কাছে কল করে তিনি কোথায় আছেন বলতে পারেননি। পরে তাঁকে অপহরণ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ ঘটনায় রফিক মিয়ার ছেলে মিলন মিয়া বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়। একপর্যায়ে অপহরণের ঘটনাটি সাজানো বলে নিশ্চিত হয়। পরে গত শুক্রবার বিকেলে থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবুল কালাম আজাদ ওই বাড়িতে গিয়ে মিথ্যা ঘটনা সাজানোর অভিযোগ তোলেন। ওই পরিবারের সদস্যদের আটক করার হুমকি দিয়ে আসেন। এর ছয় ঘণ্টা পর শুক্রবার রাতে অপহূত ব্যক্তি বাড়ি ফিরে আসেন।

উদ্ধার হওয়া রফিক মিয়ার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রথমে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পাওয়ার কথা বলেন। পরে এক লাখ টাকার কথা বলেন। এই এক লাখ টাকা তিনি জমি বিক্রি করে নিয়েছেন বলে জানান। তবে জমি ক্রেতার নাম ও মোবাইল নম্বর চাওয়া হলে তিনি হারিয়ে ফেলেছেন বলে জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, রফিক মিয়া সাদিপুর ইউপি নির্বাচনে সদস্য প্রার্থী হওয়ায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের ফাঁসাতে এ নাটক সাজিয়েছেন। আগামী ২৮ মে ওই ইউপিতে নির্বাচন।

সোনারগাঁ থানার এএসআই আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘প্রথমে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে সন্দেহ হয়। পরে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে অপহরণের ঘটনা সাজানো বলে নিশ্চিত হই। ’


মন্তব্য