kalerkantho


‘ঘরেই শত্রু’ আ. লীগের

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



‘ঘরেই শত্রু’ আ. লীগের

তৃতীয় ধাপে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের নির্বাচন আগামী ২৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। গত মঙ্গলবার যাচাই-বাছাইয়ের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে ৫২ জনের প্রার্থিতা চূড়ান্ত হয়েছে। এদিকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগে চেয়ারম্যান পদে প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নেই বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। কোনো কোনোটিতে আবার বিদ্রোহীর সংখ্যা একাধিক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন মো. মোর্শেদ আলী। আর মনোনয়নবঞ্চিত হয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা এ বি সিদ্দিক। মাঠে রয়েছেন দলীয় সমর্থক হাফেজ মো. আজিজুল ইসলামও। নান্দাইল সদর ইউনিয়নে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন মো. আনোয়ারুল হক। বিদ্রোহী হিসেবে রয়েছেন উপজেলা কৃষক লীগ সভাপতি বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন কাজল, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু নাঈম ভুইয়া ফারুক। চণ্ডীপাশা ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মো. এমদাদুল হক ভুইয়া আর বিদ্রোহী হিসেবে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মো. শাহাব উদ্দিন ভুইয়া। গাংগাইল ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ আশরাফুজ্জামান খোকন দলীয় প্রার্থী হয়েছেন আর বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান নয়ন।

রাজগাতি ইউনিয়নে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন মো. ইফতেখার মমতাজ ভুইয়া খোকন আর বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করছেন মোজাহিদ উদ্দিন খোকন ও আল সায়েম মোহাম্মদ শেখর। মুশুলি ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ইফতেখার উদ্দিন ভুইয়া আর এখানে বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করছেন মো. জালাল উদ্দিন। সিংরইল ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন মো. সাইদুল ইসলাম আর বিদ্রোহী হিসেবে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা মো. সাইফুল ইসলাম নির্বাচন করছেন। আচারগাঁও ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন মো. মোফাজ্জল হোসেন কাইয়ুম আর মনোনয়নবঞ্চিত হয়ে বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম। শেরপুর ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী হয়েছেন মোয়াজ্জেম হোসেন ভুইয়া মিল্টন আর বিদ্রোহী হিসেবে রয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন। খারুয়া ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী হয়েছেন মো. কামরুল হাসনাত ভুইয়া মিন্টু আর বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য মো. আফাজ উদ্দিন ভুইয়া। জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন মো. আবুল কালাম মণ্ডল আর বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাফা কামাল ওয়ানিছ।

সূত্র মতে, বিদ্রোহীদের মধ্যে এমন অনেক প্রার্থী রয়েছেন, যাঁরা প্রায় ৩০ বছর ধরে তৃণমূল পর্যায়ে আওয়ামী লীগকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাঁরা এবার দলের মনোনয়ন পাননি। অথচ তৃতীয় সারির অনেক নেতাকর্মী দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন।

এদিকে দলীয় সূত্রে জানা যায়, নান্দাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার দাবি করছে দুই পক্ষ। এর মধ্যে এক পক্ষে রয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) আবদুস সালামের নেতৃত্বাধীন অংশ। আর অন্য পক্ষে আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির নেতৃত্বাধীন সংসদ সদস্য মো. আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন।

বর্তমান সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান বলেন, প্রতিটি ইউনিয়নে সভা করে সর্বসম্মতিক্রমে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে যোগ্য বিবেচিত হওয়ায় তিনি যাঁদের চূড়ান্ত করেছেন, সেই প্রার্থীরাই দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন।

এ বিষয়ে সালাম পক্ষের অন্যতম নেতা (এবারের নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী) উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি মো. শাহাব উদ্দিন ভুইয়া জানান, অজ্ঞাত কারণে তাঁদের দলের প্রার্থী তালিকার ফাইল সংশ্লিষ্ট স্থানে পৌঁছায়নি। যে কারণে একতরফাভাবেই এমপি সমর্থিতরাই মনোনয়ন পেয়েছেন।


মন্তব্য