kalerkantho


আসামিদের উপস্থিতিতে দুজনের সাক্ষ্যগ্রহণ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



আসামিদের উপস্থিতিতে দুজনের সাক্ষ্যগ্রহণ

নারায়ণগঞ্জের বহুল আলোচিত সাত খুনের দুটি মামলায় দুজনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ওই ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত ২৩ জনের উপস্থিতিতে ওই দুজনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়।

তাঁরা হলেন নিহত কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম ওরফে শহীদ চেয়ারম্যান ও নজরুলের আত্মীয় শাহজালাল মিয়া।

এ দুজনের মধ্যে শহীদুল ইসলাম সাত খুনের কয়েক মাস আগে নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মানববন্ধনের পাশাপাশি থানায় ডায়েরিও করেছিলেন। যদিও সাত খুনের পর তিনিই প্রথম র‌্যাবের বিরুদ্ধে হত্যাকাণ্ডের ইঙ্গিত দেন। পরে তাঁর নিরাপত্তায় সার্বক্ষণিক পুলিশ পাহারা দিলেও গত নভেম্বরে সেটা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

গতকাল সকালে কঠোর নিরাপত্তায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার ও কাশিমপুর কারাগার থেকে সাত খুন মামলার প্রধান আসামি নূর হোসেন, র‌্যাবের চাকরিচ্যুত তিন কর্মকর্তা তারেক সাঈদ, এম এম রানা, আরিফুর রহমানসহ ২৩ আসামিকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আগামী ৪ এপ্রিল অন্যদের সাক্ষ্য নেওয়া হবে।

সূত্র মতে, সাত খুনের ঘটনায় দুটি মামলা হয়। একটি মামলার বাদী বিজয় কুমার পাল নিহত অ্যাডভোকেট চন্দন সরকারের জামাতা, অন্য মামলার বাদী সেলিনা ইসলাম বিউটি নিহত নজরুল ইসলামের স্ত্রী। দুটি মামলায় অভিন্ন সাক্ষী ১২৭ জন করে।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল অপহূত হওয়ার পর ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ছয়জনের ও ১ মে একজনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তদন্ত শেষে প্রায় এক বছর পর গত ৮ এপ্রিল নূর হোসেন, র‌্যাবের সাবেক তিন কর্মকর্তাসহ ৩৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।


মন্তব্য