kalerkantho


নারায়ণগঞ্জ মুন্সীগঞ্জ টঙ্গীতে গ্রেপ্তার ৯

নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, রূপগঞ্জ ও টঙ্গী প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মুিন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ঘাট থেকে রফিক সরদার (৩২) নামের এক যুবককে ৫০০ টাকার ১৫১টি জাল নোটসহ গ্র্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে শিমুলিয়া ঘাটে রফিক সরদার দোকান থেকে রুটি কিনে দোকানদার আলী হোসেনকে ৫০০ টাকার একটি নোট দেয়।

পরে যাচাই-বাছাই শেষে নোটটি জাল হিসেবে ধরা পড়ে। এ সময় স্থানীয় দোকানদাররা রফিকের কাছ থেকে বাকি টাকাগুলো নিয়ে দেখতে পান সব টাকা জাল। পরে তাঁরা তাকে পুলিশে হস্তান্তর করেন। ঘটনার সত্যতার নিশ্চিত করে লৌহজং থানার এসআই নুরুল হুদা জানান, রফিকের কাছ থেকে ১৫১টি ৫০০ টাকার জাল নোট জব্দ করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। রফিক শরীয়তপুরের পালং উপজেলার স্বর্ণ ঘোষ গ্রামের মোতালেব সরদারের ছেলে। তার নামে লৌহজং থানায় একটি মামলা হয়েছে।

এদিকে টঙ্গীর মরকুন টিঅ্যান্ডটি বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৩ কেজি গাঁজাসহ আব্দুল আউয়াল (২৮) ও মোকতার হোসেন (২১) নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। টঙ্গী মডেল থানার সহকারী উপ-পুলিশ পরিদর্শক সিদ্দিকুর রহমান জানান, গ্রেপ্তারকৃত দুজনসহ সাত-আটজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা হয়েছে। তাদের আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও তিন রাউন্ড গুলিসহ চার সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি চৌধুরীবাড়ি হিন্দুপাড়া থেকে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাদের ব্যবহূত তিনটি মোটরসাইকেল ও একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা জব্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তাররা হলো সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পশ্চিমপাড়ার সামসুদ্দিনের দুই ছেলে সাইফুল ইসলাম রূপম (২৮), মাহাবুবুর রহমান আরমান (২৬), কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার ব্যাপারী বাড়ির মহিউদ্দিনের ছেলে কাবির (২৫) ও বরিশালের গলাচিপা উপজেলার আমতলী এলাকার হানিফ গাজীর ছেলে মনির (১৯)। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অস্ত্র আইনে মামলা করা হয়েছে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মু. সরাফাত উল্লাহ জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি দক্ষিণপাড়ার সঙ্গে উত্তরপাড়ার যুবকদের উত্তেজনা দেখা দেয়। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে ব্যবহারের জন্য ৭ দশমিক ৬৫ বোরের একটি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলিসহ মোটরসাইকেল ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা নিয়ে মহড়া দিচ্ছিল সন্ত্রাসীরা। এ সময় খবর পেয়ে উপপরিদর্শক (এসআই) ওমর ফারুকের নেতৃত্বে একটি দল সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে। তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে।

অন্যদিকে রূপগঞ্জের চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রে র‌্যাবের সোর্স খোরশেদ আলম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো কালাচানের ছেলে মোহাম্মদ আলী ও মৃত ফয়জুর রহমানের ছেলে বিল্লাল হোসেন। এর আগে গত সোমবার দুপুরে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

পুলিশ জানায়, সোমবার ভোরে চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রের চরে নিয়ে খোরশেদ আলমের হাত-পা বেঁধে শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে জখম করা হয়। এ ছাড়া তাঁর হাত-পায়ের রগ কেটে ফেলা হয়। উপড়ে ফেলা হয় দুটি চোখ। পরে পরিবারের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা খোরশেদকে মৃত ঘোষণা করেন। মাদক ব্যবসার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে খোকন ও সাহাবুদ্দিনসহ তার লোকজন এ হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহমুদুল ইসলাম বলেন, খুনের ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


মন্তব্য