kalerkantho


মাধবপুরে শিশু ইসমাইল খুন

ধানের গোলার নিচে লুকানো হয় লাশ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মাধবপুরে শিশু ইসমাইল হত্যার রহস্য উন্মোচনের দাবি করেছে পুলিশ। ইসমাইলের ভাবি শাপলা বেগম পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে, সে নিজেই ইসমাইলকে গলা টিপে হত্যা করে ঘরে ধানের গোলার নিচে লুকিয়ে রাখে।

একই জবানবন্দি সে আদালতেও দিয়েছে।

পুলিশ জানায়, মাধবপুর পৌর শহরের পশ্চিমপাড়ার রজব আলীর শিশুপুত্র ইসমাইল (৫) শনিবার নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাকে না পেয়ে মাধবপুর থানায় জিডি করেন রজব আলী। গত সোমবার সকালে ইসমাইলের বড় ভাই জুয়েল মিয়া ঘরের ভেতর লাশের গন্ধ পান। তখন ঘরে তল্লাশি চালিয়ে মেলে ইসমাইলের লাশ।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শিশুর বাবা রজব আলী, মা রহিমা বেগম, ভাই জুয়েল মিয়া ও ভাবি শাপলা বেগমকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে ইসমাইলকে হত্যার কথা স্বীকার করে শাপলা বেগম। সে পুলিশকে জানায়, শনিবার সকালে ইসমাইল তার কাছে বিস্কুট কেনার জন্য ২০ টাকা চায়। টাকা না দেওয়ায় ইসমাইল তাকে গালি দেয়।

এতে শাপলা ক্ষেপে গিয়ে ইসমাইলকে গলা টিপে ধরলে তার মৃত্যু হয়। পরে লাশ ধানের গোলার নিচে লুকিয়ে রাখে সে। শাপলার স্বীকারোক্তির পর ইসমাইলের মা-বাবা ও ভাইকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। ইসমাইলের বাবা রজব আলী শাপলা বেগমকে একমাত্র আসামি করে মামলা করেছেন। গতকাল দুপুরে শাপলা বেগমকে আদালতে নেওয়া হলে সেখানেও সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। সঙ্গে দাবি করেছে, হত্যার উদ্দেশ্য তার ছিল না।


মন্তব্য