kalerkantho


৯ পদে পরিবর্তন

ইবি প্রশাসনে পদায়ন নিয়ে প্রশ্ন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ইবি প্রশাসনে পদায়ন নিয়ে প্রশ্ন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) প্রশাসনিক ৯টি পদে গতকাল সোমবার পরিবর্তন আনা হয়েছে। উপাচার্য নির্বাহী ক্ষমতাবলে পদগুলোতে পরিবর্তন আনেন। তবে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে পদায়ন না হওয়ায় এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

ইবি সূত্র জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল ছিলেন সাদ্দাম হোসেন হলের প্রভোস্ট। দায়িত্ব শেষে তাঁকে খালেদা জিয়া হলের প্রভোস্টের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক মিজানুর রহমান ছিলেন সাবেক বঙ্গবন্ধু হলের প্রভোস্ট ও বিভাগের সভাপতি। তাঁকে শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট করা হয়েছে। বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রবিউল হোসেন প্রেস প্রশাসক, একই বিভাগের অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান পরিবহন প্রশাসক, ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শাহাদাত হোসেন আজাদকে সাদ্দাম হোসেন হল প্রভোস্ট, একই বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমানকে শেখ হাসিনা হল প্রভোস্ট, ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক ড. অশোক কুমার চক্রবর্তীকে বেগম ফজিলাতুননেসা মুজিব হল প্রভোস্ট, গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. এস এম মোস্তফা কামালকে খালেদা জিয়া হল প্রভোস্ট, সংস্থাপন শাখার উপরেজিস্ট্রার আতাউর রহমানকে ভারপ্রাপ্ত গ্রন্থাগারিক ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসের উপরেজিস্ট্রার আলী হাসানকে পরিকল্পনা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের উপরেজিস্ট্রার পারভেজ হাসানকে রেজিস্ট্রার অফিসে বদলি করা হয়েছে।

এভাবে একই ব্যক্তিদের বারবার এবং অনুজদের দায়িত্ব দেওয়ায় ক্ষুব্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষকরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জ্যেষ্ঠ শিক্ষক বলেন, ‘প্রশাসন তার কাছের মানুষগুলোকে সব সময় বিভিন্ন দায়িত্ব দিয়ে আসছে। সিনিয়র শিক্ষক বা অধ্যাপক থাকতে সহযোগী অথবা সহকারী শিক্ষকদের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এতে অন্য শিক্ষকদের হেয় করা হচ্ছে। ’

এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হাকিম সরকার বলেন, ‘যোগ্য ও সিনিয়রদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ’


মন্তব্য