kalerkantho


ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

প্রার্থনাকক্ষে ভাঙচুরের ঘটনায় কর্মসূচি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রার্থনা কক্ষে ভাঙচুরের প্রতিবাদে দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সভা শেষে এই ঘোষণা দেয় ইবি পূজা উদ্যাপন কমিটি। এ ছাড়া ঘটনার নিন্দা এবং সুষ্ঠু তদন্ত ও অপরাধীদের শাস্তি দাবি করে বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার দুপুরে ইবি ছাত্রলীগের সহসম্পাদক ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাতের অনুসারী শাহজালাল ইসলাম সোহাগ (দাওয়া অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ), রিয়ন মিয়া (আইন), তুষার (ইসলামের ইতিহাস), আবির হোসেনসহ (বায়েটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং) কয়েকজন টিএসসিসিতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রার্থনা কক্ষে ভাঙচুর চালায়। এতে ওই কক্ষের তিন-চারটি জানালার কাচ ভেঙে যায়। এ ঘটনায় ওই ধর্মাবলম্বীর শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে রাতেই প্রক্টর অধ্যাপক মাহবুবর রহমানের নেতৃত্বে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয় থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

যোগাযোগ করা হলে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল সিদ্দিকী বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। ’

এদিকে ওই ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল সকালে সভা করেছে ইবি পূজা উদ্যাপন কমিটি। সভায় আগামী ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে কালো ব্যাজ পরে স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ এবং পরদিন ২৭ মার্চ সকাল ১১টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে মানববন্ধন ও উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. অরবিন্দ সাহা জানান।

প্রক্টর মাহবুবর রহমান বলেন, ‘ঘটনাটি খুব দুঃখজনক। এর সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

বিশ্ববিদ্যালয় থানার ওসি শোণিত কুমার গাইন বলেন, ‘বিষয়টি আমি জানি। তদন্ত চলছে। ’


মন্তব্য