kalerkantho


স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচি শুরু আজ

তিন উপজেলার দরিদ্ররা পাবে বিনা মূল্যের চিকিৎসা

তৌফিক মারুফ   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



টাঙ্গাইলের কালিহাতী, মধুপুর ও ঘাটাইল উপজেলায় দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী মানুষ আজ থেকে পাবে ৫০টি রোগের বিনা মূল্যে চিকিৎসা। দেশে স্বাস্থ্যসেবার নতুন এ উদ্যোগ ধীরে ধীরে ছড়িয়ে যাবে সারা দেশে।

ইউনিভার্সেল হেলথ কাভারেজ বা সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষার এ কার্যক্রমটি আজ উদ্বোধন করবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি বিভাগ এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে।

স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের মহাপরিচালক মোহাম্মদ আসাদুল ইসলাম জানান, পাইলট প্রকল্পের আওতায় সরকার আপাতত তিন উপজেলায় দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারীদের জন্য কার্যক্রমটি চালু করছে। নির্দিষ্ট সূচক ব্যবহার করে চিহ্নিত দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী পরিবারপ্রতি একটি করে স্বাস্থ্য কার্ড প্রদান করা হবে। কার্ডের ভিত্তিতে পরিবারের সদস্যরা চিকিৎসার প্রয়োজনে হাসপাতালে ভর্তি হতে পারবে এবং ৫০টি রোগের (রোগ নির্ণয়, ওষুধ, পথ্যসহ) পূর্ণ চিকিৎসা বিনা মূল্যে পাবে।

সূত্র জানায়, কর্মসূচি বাস্তবায়ন সার্বিকভাবে তত্ত্বাবধানের জন্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটে একটি সেল (এসএসকে) গঠন করা হয়েছে। মাঠ পর্যায়ের ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি হিসেবে গ্রিন ডেল্টা ইনস্যুরেন্স কম্পানি চিহ্নিত দরিদ্র পরিবারগুলোকে নিবন্ধন, এসএস কার্ড ইস্যু করা, কার্ডধারী রোগীদের হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে সাহায্য করা এবং চিকিৎসাপরবর্তী হাসপাতালের অর্থ পরিশোধে সহায়তা করবে। চিকিৎসা ব্যয় নির্বাহের জন্য সরকার পরিবারপ্রতি বার্ষিক এক হাজার টাকা প্রিমিয়াম প্রদান করবে, যার বিনিময়ে প্রতিটি পরিবার বার্ষিক সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত চিকিৎসাসুবিধা লাভ করবে। প্রিমিয়ামের অর্থসহ প্রকল্পের যাবতীয় ব্যয় স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি উন্নয়ন সেক্টরের উন্নয়ন কর্মসূচি থেকে সংস্থান করা হবে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, জটিল ও ব্যয়বহুল রোগের প্রাদুর্ভাব, নতুন চিকিৎসা পদ্ধতিসহ নানা কারণে চিকিৎসাসেবার খরচ বেড়েছে। এতে নিম্নবিত্ত পরিবারের মানুষদের আর্থিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। প্রত্যেক মানুষকে বছরে স্বাস্থ্যসেবার পেছনে ব্যয় করতে হয় ৬৩ শতাংশ টাকা। বাকিটা দাতা সংস্থা, সরকার কিংবা এনজিও থেকে সংস্থান হয়ে থাকে। এমন পরিস্থিতি থেকে রক্ষার জন্যই ইউনিভার্সেল হেলথ কাভারেজ বা সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার।

স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের মহাপরিচালক জানান, নতুন এ কার্যক্রমের আওতায় চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞদের সহায়তায় ‘ট্রিটমেন্ট প্রটোকল’ তৈরি করা হয়েছে।   কর্মসূচি পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় ম্যানুয়ালগুলো প্রস্তুত করা হয়েছে। সার্বিক তত্ত্বাবধানে একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠিত হয়েছে।


মন্তব্য