kalerkantho


রক্তমাখা পাঞ্জাবি নিয়ে কেন্দ্রে কেন্দ্রে বিএনপির প্রার্থী

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রক্তমাখা পাঞ্জাবি নিয়ে কেন্দ্রে কেন্দ্রে বিএনপির প্রার্থী

হামলায় রক্তাক্ত মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান সদর ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী আবদুল খালেক সিকদার। ছবি : কালের কণ্ঠ

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর হামলাও তাঁকে দমাতে পারেনি। তিনি কেন্দ্রে কেন্দ্রে ঘুরে ভোটের সার্বিক খোঁজখবর নিয়েছেন।

আহতাবস্থায় ঘুরে বেড়িয়েছেন পুরো ইউনিয়ন। তিনি বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আবদুল খালেক সিকদার। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত প্রথম ধাপের নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান সদর ইউনিয়নে এমন চিত্র দেখা গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ৮ নং সিরাজদিখান উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইকবাল হোসেন ও তাঁর লোকজন কেন্দ্রটি দখল করতে হামলা চালান। এ সময় উপস্থিত বিএনপি প্রার্থী আবদুল খালেক সিকদার প্রতিবাদ করলে তাঁর ওপর হামলা চালায় আওয়ামী লীগের লোকজন। এতে তিনি রক্তাক্ত হন।

এ ব্যাপারে বিএনপির প্রার্থী আবদুল খালেক সিকদার অভিযোগ করে বলেন, নৌকার প্রার্থী ইকবাল নিজেই তাঁর ওপর হামলা চালিয়েছেন। এতে তাঁর নাক, মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইকবাল হোসেনের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি।

আহত খালেক সিকদার জানান, নির্বাচনে যাতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী দখল করে সিল মারতে না পারে সে জন্য তিনি রক্তাক্ত অবস্থায়ই কেন্দ্র থেকে কেন্দ্র ঘুরছেন। হাসপাতালে না গিয়ে খবর নিয়েছেন তাঁর ভোটারদের। এ সময় তাঁকে দেখে অনেক ভোটারই কান্নায় ভেঙে পড়ে। তিনি তাদের সান্ত্বনা দিয়েছেন। কর্মীদের জড়িয়ে ধরে ভোটকেন্দ্রে যেতে উত্সাহ দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে আবদুস সালাম নামে এক ভোটার বলেন, খালেক সাহেবের ওপর যে হামলা হয়েছে এটা দুঃখজনক। তবে রক্তাক্ত পাঞ্জাবি নিয়ে কেন্দ্রে কেন্দ্রে ঘুরে বেড়ানোটাও ছিল তাঁর একটা নির্বাচনী কৌশল।


মন্তব্য