kalerkantho

কৌশলে জাল ভোট

এম সাইফুল মাবুদ, ঝিনাইদহ   

২৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



কৌশলে জাল ভোট

সকাল সোয়া ৯টার দিকে ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে বাধা দেওয়া নিয়ে এলাঙ্গী ইউনিয়নের বলাবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের বাইরে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় হুমায়ুন খান নামের এক যুবককে কুপিয়ে আহত করা হয়। তাঁকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সকাল ১০টার দিকে জোর করে বুথের ভেতরে ঢোকাকে কেন্দ্র করে সাবদালপুর ইউনিয়নের বহিরগাছি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া দুপুর ১টার দিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর কিছু সমর্থক জোর করে দোড়া ইউনিয়নের দয়ারামপুর ভোটকেন্দ্রে ঢোকার চেষ্টা করলে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ বিজিবি ও র‌্যাব দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। ইউপি নির্বাচনের প্রথম ধাপে মঙ্গলবার এমন চিত্র দেখা গেছে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নে।

এ ব্যাপারে এলাঙ্গী ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামের ভোটার আব্দুল খালেক বলেন, ‘দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় এবার ভোটের আমেজ ছিল সংসদ নির্বাচনের মতো। ’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপর একজন বলেন, ‘আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর লোকজন তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর প্রচার-প্রচারণায় নানাভাবে বাধা দিয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে না আসার জন্য নানাভাবে হুমকি-ধমকি দেওয়া হয়েছে। যে কারণে অনেক ভোটার ভোটকেন্দ্রে আসছে না। ’

সাবদালপুর ইউনিয়নের বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান লাবলু বলেন, ‘আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজন বিভিন্ন কৌশলে ব্যাপক জাল ভোট দিয়েছে। বেশ কিছু ভোটকেন্দ্রে বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ঘটেছে। ’

বলুহর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী শাহজাহান সিকদার বলেন, ‘এবার নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমরা আতঙ্কে ছিলাম ভোট সুষ্ঠু হবে কি না। ’

অবশ্য অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করে ভোটগ্রহণ শেষে কোটচাঁদপুর রিটার্নিং অফিসার মাসুদুর রহমান বলেন, ‘উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। অপ্রীতিকর কোনো ঘটনার অভিযোগ আমার কাছে আসেনি। ৭৫ থেকে ৮০ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে। ’


মন্তব্য