kalerkantho


সোনারগাঁয় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁর কাজীপাড়া এলাকায় সোমবার দুপুরে বাড়ির সীমানাপ্রাচীর নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। ঘটনাস্থল থেকে আমিন মিয়া ও জাহের আলী নামের দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের কাজীপাড়া গ্রামের আমান উল্লার সঙ্গে জাহের আলীর বাড়ির সীমানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গতকাল জাহের আলী বাড়ির সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ করার সময় আমান উল্লা বাধা দেন।

এতে দুজনের মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। পরে আমান উল্লা ও শহীদুল্লার নেতৃতে পাঁচ-সাতজন লোক দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জাহের আলী, তাঁর আত্মীয় তাসলিমা আক্তার ও রাবেয়া আক্তারকে পিটিয়ে এবং কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। একপর্যায়ে জাহের আলীর লোকজন একত্রিত হয়ে রামদা, লাঠি, রডসহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে পাল্টা হামলা চালিয়ে আমান উল্লা, জামান মিয়া ও আহসান উল্লাহকে আহত করে। তাঁদের মধ্যে আহসান উল্লা ও জামান মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ বিষয়ে আহত জাহের আলী বলেন, ‘পূর্বশত্রুতার জের ধরে সীমানাপ্রাচীর নিয়ে আমান উল্লা ও তাঁর লোকজন আমাকেসহ  আমার দুই আত্মীয়কে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে। ’

অন্যদিকে আমান উল্লার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ঘটনাটি ঘটেছে সত্য। তাঁর লোকজন জড়িত থাকলেও তিনি জড়িত নন বলে দাবি করেন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিয়ারসহ আটক  ২

সোনারগাঁর পাঁচআনি এলাকার স্বপ্ন বিলাস রাঙ্গামাটি ফার্নিচার শোরুম থেকে ৯৬০ বোতল বিয়ারসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলো লিটন মিয়া ও শফিক হোসেন।

সোনারগাঁ থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, স্বপ্ন বিলাস রাঙ্গামাটি ফার্নিচার দোকানের মালিক পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য ফজলুল হকের ছেলে আব্দুর রহমান। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


মন্তব্য