kalerkantho


ইপিজেডে সংঘর্ষ, মামলা

শ্রমিক আন্দোলনের হুমকি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



গভীর রাতে বাসা থেকে কারখানা শ্রমিকদের ধরে এনে নির্যাতনের পর তাদের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে গতকাল বুধবার নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় বিক্ষোভ সমাবেশে করেছে শ্রমিকরা। আদমজী রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকার (ইপিজেড) অনন্ত হুয়াসিয়াং লিমিটেডের শ্রমিকরা ওই কর্মসূচি পালন করে।

ওই সমাবেশে শ্রমিক নেতারা সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘দেশের অর্থনীতিতে অগ্রণী ভূমিকা রাখা নিরীহ শ্রমিকদের দাবি পূরণ না করে নির্যাতনকারী মালিকপক্ষের কথায় শ্রমিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, হয়রানি ও নির্যাতন করা হচ্ছে। অবিলম্বে এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ঘেরাওসহ বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। ’

এর আগে গত মঙ্গলবার সকালে অনন্ত হুয়াসিয়াং লিমিটেডের মালিকপক্ষের সঙ্গে বিভিন্ন দাবি নিয়ে শ্রমিকদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের পাঁচজন আহত হয়। পরে দুপুরে কর্তৃপক্ষ কারখানাটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে।

কারখানার শ্রমিক রুহুল আমিন জানান, মঙ্গলবারের ঘটনার পর রাত আড়াইটার দিকে পাঁচ শ্রমিককে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে নির্যাতন করা হয়। পরে সকালে তাদের নামে মামলা দেওয়া হয়।

সমাবেশে নুর ইসলামের স্ত্রী লাইজু বেগম বলেন, তাঁর শ্বশুর-শাশুড়ি খুবই অসুস্থ। তাঁদের সামনে তাঁর স্বামীকে মারধর করে পুলিশ। পরে তাঁকে গালাগাল করে পুলিশ তাঁর স্বামীকে ধরে নিয়ে যায়। তাঁর স্বামী কোনো অপরাধ করেননি দাবি করে তিনি বলেন, তবে কেন তাঁকে শাস্তি পেতে হবে?

নুর জাহান, লাইজু ও মো. জসিম বলেন, ‘আমাদের পেটে লাথি দিচ্ছে মালিকপক্ষ। আমরা এর প্রতিবাদ করেছি বলে আমাদের ভাইদের মারধর করে রাতের অন্ধকারে বাসা থেকে তুলে নিয়ে গেছে। কিন্তু যারা জেলে আছে, তাদের মুক্ত না করে বাসায় ফিরে যাব না। প্রয়োজনে জেলে যাব। ’ এ সময় সরকার শ্রমিকদের পক্ষে নেই বলে অভিযোগ তোলেন তাঁরা।

ওই আন্দোলনের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে জেলা ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি হাফিজুল ইসলাম বলেন, ‘সরকার শ্রমিকদের দাবি আদায়ে কার্যকর ভূমিকা নিচ্ছে না। সরকার শ্রমিকবান্ধব নয়। নইলে দেশের অর্থনীতিতে সর্বোচ্চ ভূমিকা রাখা এ শ্রমিকদের স্বাধীনতার মাসে রাতের অন্ধকারে এভাবে ধরে এনে মারধর করতে পারত না পুলিশ। আমরা এর নিন্দা জানাই। ’ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি ও বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) জেলা সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, ট্রেড ইউনিয়নের জেলা সাধারণ সম্পাদক বিমল দাস, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলা সভাপতি এম এ শাহিন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন প্রমুখ।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মো. সরাফত উল্লাহ বলেন, ‘অনন্ত হুয়াসিয়াং কারখানায় মালিকপক্ষের সঙ্গে শ্রমিকের সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা হয়েছে। ওই ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের কোনো নির্যাতন করা হয়নি। ’


মন্তব্য