kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ভোলা-লক্ষ্মীপুর ফেরি বন্ধ

আটকা যানবাহনে নষ্ট হচ্ছে পণ্য

ভোলা প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মেঘনার তীব্র স্রোতে ভোলা সদরের ইলিশা ইউনিয়নের ফেরিঘাটের পন্টুনের পাইলিং ভেঙে যাওয়ায় গত রবিবার বিকেল থেকে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ফেরি সার্ভিস বন্ধ রয়েছে। এতে মালবাহী ট্রাকসহ ভোলা ও লক্ষ্মীপুরের দুই পাড়ে শত শত যানবাহন আটকা পড়েছে। চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবহন শ্রমিকরা। শুধু তাই নয়, ফেরিঘাটে আটকে পড়া ট্রাকের ভেতর শুঁটকি মাছ ও আলুসহ কোটি কোটি টাকার কাঁচামাল পচে যাচ্ছে। নষ্ট হচ্ছে অন্যান্য পণ্য।

মঙ্গলবার সকালে ভোলা শহর থেকে প্রায় ১২ কিলোমিটার দূরে ইলিশা ফেরিঘাটে গিয়ে দেখা গেছে, ওই এলাকার জংশন বাজারের ইলিশা মডেল কলেজের সামনে অন্তত ৫০টি মালবাহী ট্রাক আটকা পড়েছে। এসব ট্রাকে কোটি কোটি টাকার পণ্যদ্রব্য নষ্ট হচ্ছে।

কথা হয় ট্রাকচালক রেজাউল করিমের সঙ্গে। তিনি জানান, ভোলার চরফ্যাশন থেকে প্রায় সাত লাখ টাকার ধান নিয়ে গত বৃহস্পতিবার ইলিশা ফেরিঘাটে যান। যাবেন নোয়াখালীর চৌমুহনীতে। কিন্তু ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় ছয় দিন ধরে ট্রাকের ভেতর নষ্ট হচ্ছে তাঁর ধান। ধানে বীজ গজিয়েছে।

এ ব্যাপারে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ফেরি সার্ভিসের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) আবু আলম জানান, মেঘনার তীব্র স্রোতের কারণে ভোলা সদরের ইলিশা ফেরিঘাটের পন্টুনের র‌্যামের প্রান্তভাগে পাইলিং ভেঙে গেছে। এতে করে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে ফেরি চলাচল। হুমকির মুখে পড়েছে গুরুত্বপূর্ণ এ রুটটি। তাই বিআইডাব্লিউটিএ ফেরিঘাটটি রবিবার বিকেলে অচল ঘোষণা করেছে। সোমবার সকাল থেকে সব ধরনের যান চলাছল বন্ধ রয়েছে। দুই পাড়ে তিন শতাধিক যান আটকা পড়েছে। নষ্ট হচ্ছে কোটি কোটি টাকার বিভিন্ন মালামাল।

এদিকে ভোলা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী তোফায়েল হোসেন জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকেই ইলিশা ফেরিঘাটে মেরামতকাজ শুরু হয়েছে। আগামী পাঁচ-ছয় দিনের মধ্যে কাজ শেষ হলেই দ্রুত ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে ফের ফেরি চলাচল শুরু হবে।


মন্তব্য