kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


রাঙামাটিতে সেনাবাহিনীর ভুয়া পরিচয়

পাঁচজন রিমান্ডে, বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ৯ জন জেলে

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রাঙামাটির বরকলে বিজিবির হাতে আটক এক ভুয়া সেনা কর্মকর্তা ও তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ১৬ জনের মধ্যে পাঁচজনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন রাঙামাটি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। আদালত তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ বাকি ৯ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর করে জেলে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

রবিবার রাঙামাটি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬ জনকে হাজির করে পুলিশ পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানায়। রিমান্ড আবেদনের ওপর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের আইনজীবীদের শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মোহাম্মদ মোহসেনের আদালত মামলার আসামি বিভাষ দেওয়ানকে দুদিন এবং অন্য চারজন রিটেন চাকমা, জ্ঞান লাল চাকমা, সোহেল চাকমা এবং স্মৃতি বিকাশ চাকমাকে এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আগামী ২৯ মার্চ আদালত এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন নির্ধারণ করেছেন।

উল্লেখ্য, রাঙামাটি রাজবন বিহারের তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ১২ জনের একটি দল শুক্রবার রাঙামাটির বরকলে ঘুরতে যায়। ওই সময় স্থানীয় একটি বিজিবি ক্যাম্পে এই দলের সঙ্গে থাকা বিভাষ দেওয়ান নিজেকে সেনাবাহিনীর সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট পরিচয় দিলে বিজিবির সন্দেহ হয়। জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের ভুয়া পরিচয় নিশ্চিত হয় বিজিবি। পরে তাদের একজনের কাছে সেনাবাহিনীর পোশাক এবং পরিচয়পত্র পাওয়ার পর বিজিবি সদস্যরা বিভাষ দেওয়ানসহ ১২ জনকে আটক করে বরকল পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

আটকের পর বিভাষ দেওয়ানের তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭ ওই দিনই অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রামের বায়েজিদ বোস্তামী এলাকা থেকে আরো চার যুবককে আটক করে রাঙামাটি কোতোয়ালি থানায় সোপর্দ করে। তাদের কাছেও সেনাবাহিনীর পরিচয়পত্র পায় র‌্যাব। আটক ১৬ জনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইন ও সরকারি গোপন তথ্য ফাঁসের আইনে মামলা করা হয়।

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সুস্মিতা চাকমা জানান, রিমান্ড শুনানি শেষে আদালত এক আসামিকে দুই দিন এবং চারজনকে এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। তাদের মধ্যে তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুকে রিমান্ড থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।


মন্তব্য