গাজীপুরে এএসআই নিহত কনস্টেবলসহ আহত ৩-335382 | প্রিয় দেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭


সড়ক দুর্ঘটনা

গাজীপুরে এএসআই নিহত কনস্টেবলসহ আহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



গাজীপুরে পুলিশের টহল মাইক্রোবাস দুর্ঘটনায় জয়দেবপুর থানার হোতাপাড়া ফাঁড়ির এক এএসআই নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন দুই কনস্টেবল ও মাইক্রোবাসের চালক। তাঁদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকার পপুলার ও স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত শুক্রবার রাত ৪টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর সদর উপজেলার বাঘের বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় মাইক্রোবাসটি সম্পূর্ণ দুমড়েমুচড়ে গেছে।

নিহত এএসআই হারুন অর রশিদ (৩৫) ময়মনসিংহের ত্রিশালের মাপুনআলা গ্রামের উমর উদ্দিনের ছেলে। তিনি স্ত্রী ও তিন সন্তান নিয়ে রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাসের আরপি গেট এলাকায় ভাড়া থাকতেন। ২০১৪ সালের ২২ জুলাই তিনি গাজীপুর জেলায় যোগ দিয়ে হোতাপাড়া ফাঁড়িতে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

আহতরা হলেন শেরপুরের নকলা উপজেলার বাড়ারচর গ্রামের ছফির উদ্দিনের ছেলে কনস্টেবল আবদুল জব্বার (২৫), ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানার মৃত মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে কনস্টেবল মানিক (৪০) এবং মাইক্রোবাসচালক গাজীপুর সদর উপজেলার মেম্বার বাড়ি এলাকার দরগারচালা গ্রামের আবদুল আজিজের ছেলে ফারুক হোসেন (৩২)।

মাওনা হাইওয়ে থানার ওসি হেলালুর রহমান জানান, পুলিশের টহল মাইক্রোবাসটি বেপরোয়া গতিতে মাটিভর্তি একটি বিকল ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা খেলে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে তিনি ওই তিনজনকে উদ্ধার করে শ্রীপুরের মাওনা মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তাঁদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এএসআই হারুন অর রশিদের মৃত্যু হয়।

হোতাপাড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নাজমুল হক জানান, এএসআই হারুনের মির্জাপুর ও বাঘের বাজার এলাকায় ডিউটি ছিল। কনস্টেবল জব্বার ও কনস্টেবল মানিককে নিয়ে রাত ৯টার দিকে তিনি ফাঁড়ি থেকে বের হন। সর্বশেষ রাত দেড়টার দিকে তাঁর সঙ্গে কথা হয়েছিল। ভোর ৫টার দিকে হাইওয়ে পুলিশের কাছ থেকে দুর্ঘটনার খবর পান।

এসআই নাজমুল আরো জানান, টহল ডিউটির জন্য প্রতি রাতে লেগুনা রিকুইজিশন করা হয়। এএসআই হারুনেরও শুক্রবার রাতে লেগুনায় টহল দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু লেগুনা রেখে তিনি কেন মাইক্রোবাস ভাড়া করে টহল ডিউটিতে গিয়েছিলেন তা জানা নেই।

মন্তব্য