ভাঙ্গায় সংঘর্ষ ভাঙচুর পুলিশসহ আহত ১৫-335249 | প্রিয় দেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


ভাঙ্গায় সংঘর্ষ ভাঙচুর পুলিশসহ আহত ১৫

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ফরিদপুরের ভাঙ্গার ঘারুয়া ইউনিয়নের হাজরাকান্দা গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) বর্তমান ও সাবেক সদস্যের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে এ সংঘর্ষে পুলিশসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। এ সময় বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনাও ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ তিন রাউন্ড শটগানের গুলি ছোড়ে। এ ব্যাপারে গতকাল বিকেল পর্যন্ত কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি।

জানা গেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ঘারুয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের হাজরাকান্দা গ্রামে বর্তমান ইউপি সদস্য জুলহাস মাতুব্বরের সঙ্গে সাবেক ইউপি সদস্য আশরাফ আলীর দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। গতকাল সকালে ওই গ্রামে একটি বিরোধীয় জমির সীমানা নির্ধারণ নিয়ে দুই পক্ষের সমর্থক আব্দুর রশিদ ও রতন খানের মধ্যে কথাকাটাকাটি এবং পরে হাতাহাতি হয়।

এ ঘটনার পরপরই দুই পক্ষের শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের পাঁচটি বাড়ি ভাঙচুর  ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ সংঘর্ষে পুলিশসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়। আহতদের ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে ভাঙ্গা থানার পুলিশ কনস্টেবল নুরুজ্জামানও রয়েছেন। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ প্রথমে লাঠিপেটা করে এবং পরে গুলি চালায়। ভাঙ্গা থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি।

আগুনে পুড়েছে ছয়টি ঘর

এদিকে ভাঙ্গার আগলী ইউনিয়নের পশ্চিম আলগী গ্রামে আগুনে ছয়টি ঘর পুড়ে গেছে। জানা যায়, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই গ্রামের বাকী মাতুব্বরের রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। পাশাপাশি ঘর হওয়ায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে বাকী মাতুব্বর, আওলাদ মাতুব্বর, শাহেদ মাতুব্বর, সরোয়ার মাতুব্বর ও সিরাজ মাতুব্বরের বসতবাড়িসহ ছয়টি ঘর পুড়ে যায়। এলাকাবাসী আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ও স্থানীয় জনতা ঘণ্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। আগুনে ওই ঘরগুলোতে থাকা টাকা, আসবাবপত্র ও ফসল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

মন্তব্য