নওগাঁয় জনতা পোড়াল ট্রাক, লক্ষ্মীপুরে-335247 | প্রিয় দেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০১৬। ১৬ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৮ জিলহজ ১৪৩৭


আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় দুই স্কুল ছাত্র নিহত

নওগাঁয় জনতা পোড়াল ট্রাক, লক্ষ্মীপুরে হাঙ্গামা

নওগাঁ ও লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

১৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নওগাঁয় জনতা পোড়াল ট্রাক, লক্ষ্মীপুরে হাঙ্গামা

নওগাঁর ধামইরহাট-জয়পুরহাট মহাসড়কের চকময়রাম এলাকায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে স্কুল ছাত্র নিহত হওয়ার প্রতিবাদে গতকাল এলাকাবাসী ওই সড়ক অবরোধ করে দুটি ট্রাকে আগুন দেয়। ইনসেটে নিহত স্কুল ছাত্র ইয়াসির আরাফাত স্বাধীন। ছবি : কালের কণ্ঠ

নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় বালুবোঝাই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে স্কুলছাত্র নিহতের ঘটনায় গতকাল শনিবার দুটি ট্রাকে আগুন দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

নিহত স্কুলছাত্র ইয়াছির আরাফাত স্বাধীন (১১) ফার্শিপাড়া গ্রামের পান ব্যবসায়ী ইয়াছিন আলী টুকুর একমাত্র ছেলে। সে চকময়রাম মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্বাধীন গতকাল সকাল ৯টার দিকে বিদ্যালয়ে জনৈক শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়ে সাইকেলে বাসায় ফিরছিল। পথে চকময়রাম আমবাগানের কাছে ধামইরহাট-জয়পুরহাট আঞ্চলিক মহাসড়কে একই দিকে অগ্রসরমান দুটি ট্রাক ছিল। ওই দুই গাড়িকে সাইড দিতে গিয়ে রাস্তার পাশে রাখা বালুর ওপর সাইকেল ওঠাতে গেলে পিছলে রাস্তার ওপর পড়ে সে। তাৎক্ষণিকভাবে দুটি ট্রাক তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তার মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত জনতা ট্রাক দুটিতে আগুন দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে উত্তেজিত জনতার সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে। এতে এন্তাজ আলী নামের এক পুলিশ সদস্য ও স্থানীয় কয়েকজন আহত হয়।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল। এদিকে শিক্ষার্থী স্বাধীনের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। বিকেলে তার মরদেহ ফার্শিপাড়ায় দাফন করা হয়। ধামইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিকদার মো. মশিউর রহমান জানান, ট্রাক দুটির চালক ও সহকারীরা পালিয়ে গেছে।

এদিকে আটোরিকশার সঙ্গে লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে এক স্কুল ছাত্র নিহত হওয়ার জেরে লক্ষ্মীপুরে বিক্ষুব্ধ জনতা গাছের গুঁড়ি ও ইটপাটকেল ফেলে সড়ক অবরোধ করেছে। এ সময় তারা খণ্ড খণ্ড মিছিল করে বিভিন্ন স্লোগান দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিক্ষুব্ধদের অবরোধ তুলে নিতে বললে স্থানীয় জনতার সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। এতে এক পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে সাতজন আহত হয়েছে। এ নিয়ে ভবানীগঞ্জ-চৌরাস্তা ও আশপাশ এলাকা থমথমে এলাকা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার বিকেলে রামগতি-লক্ষ্মীপুর সড়কের ভবানীগঞ্জ কলেজ এলাকায় আটোরিকশার সঙ্গে লেগুনার সংঘর্ষে স্কুল ছাত্র শাহরিয়ার (৮) নিহত হয়। এ সময় আরো আটজন আহত হয়। শাহরিয়ার সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম চরমনসা গ্রামের আবদুল মান্নান ইব্রাহীমের ছেলে ও স্থানীয় আমরিতোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। অটোরিকশার সামনে বসা শাহরিয়ারের শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার পুলিশের এসআই মো. কাউছারুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে স্কুল ছাত্র শাহরিয়ারের লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য