অগ্রযাত্রায় নতুনভাবে পরিচিতি পেয়েছে-335004 | প্রিয় দেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


চট্টগ্রামে বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন

অগ্রযাত্রায় নতুনভাবে পরিচিতি পেয়েছে বাংলাদেশ : তোফায়েল

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশকে যারা আগে তলাবিহীন ঝুড়ি বলে ডাকত, এখন তারাই বিস্ময়কর উত্থান বা মিরাকল হিসেবে বাংলাদেশকে অভিহিত করছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতি যেভাবে হচ্ছে, তাতে নতুনভাবে পরিচিতি পেয়েছে বাংলাদেশ।

গতকাল শুক্রবার চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। চট্টগ্রাম চেম্বারের উদ্যোগে নগরীর পলোগ্রাউন্ড মাঠে মাসব্যাপী এ বাণিজ্য মেলা শুরু হয়েছে। মাসব্যাপী এ মেলায় ৪০০ দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারির আগে দেশে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সম্ভাবনা নেই। আশা করছি, সেই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে। কারণ বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নিয়ে ভুল বুঝতে পেরেছে। এর প্রমাণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও সর্বশেষ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির অংশ নেওয়া।’

চট্টগ্রাম নগরের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা এবং বিলবোর্ডমুক্ত নগর দেখে চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের প্রশংসা করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, সিটি মেয়র একজন যোগ্য মেয়র।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, চট্টগ্রামের গ্যাস সংকট নিরসনে মাতারবাড়ীতে এলএনজি (লিকুইফায়েড ন্যাচারাল গ্যাস) টার্মিনাল স্থাপনের কাজ চলছে। সেখান থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার দীর্ঘ ৩০ ইঞ্চি ব্যাসের পাইপলাইন স্থাপনের কাজও পুরোদমে শুরু হয়েছে। তিনি বলেন, ‘সৌদি আরব গ্যাসের ওপর ভাসলেও সেখানে আমাদের মতো লাইনের মাধ্যমে গ্যাস দেওয়া হয় না। ফলে বাসাবাড়িতে লাইনের মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহের বদলে আমরা সিলিন্ডারে গ্যাস ব্যবহারে জোর দিচ্ছি।’

দেশের দু-একটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের হেডকোয়ার্টার চট্টগ্রামে হওয়া উচিত জানিয়ে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘বাণিজ্যিক ব্যাংক কর্তৃপক্ষের এটি বাস্তবায়ন করা উচিত; অন্যথায় আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলে সেটি বাস্তবায়ন করব।’

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বিলবোর্ডমুক্ত নগরী গড়ার সাফল্যের কথা উল্লেখ করে বলেন, চট্টগ্রাম নগরের সব নালার তলানি না দেখা পর্যন্ত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। আগামী বর্ষা নিয়ে আতঙ্ক ছড়ানোর কিছু নেই।

চট্টগ্রাম চেম্বারের সাবেক সভাপতি এম এ লতিফ এমপি বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে দেশের প্রধান চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের কার্যক্রম এক মুহূর্তের জন্যও বন্ধ হতে দিইনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া দায়িত্ব আমি যথাযথভাবে পালন করেছি এবং করছি।’

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি নুরুন নেওয়াজ সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম চেম্বারের সভাপতি মাহবুবুল আলম, সহসভাপতি সৈয়দ জামাল আহমদ প্রমুখ।

বাণিজ্য মেলায় ৪০০ প্রতিষ্ঠান : বেসরকারি উদ্যোগে দেশের সবচেয়ে বড় চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার আয়োজক চট্টগ্রাম চেম্বার। নগরীর পলোগ্রাউন্ড মাঠে চার লাখ বর্গফুটের বিশাল পরিসরে এবার মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। অংশ নিচ্ছে সাড়ে চার শ দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠান। চট্টগ্রাম চেম্বার ১৯৯২ সাল থেকে মেলার আয়োজন করে আসছে। গত বছর বাণিজ্য মেলায় ২৮০টি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে স্টল সংখ্যা ছিল ৩০০। মাসব্যাপী মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে। প্রবেশমূল্য ১০ টাকা।

মন্তব্য