kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাড়ে ছয় কোটি টাকার নিষিদ্ধ পণ্যসহ চার জালিয়াত আটক

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মার্বেল পাথরের ঘোষণা দিয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দর দিয়ে আমদানি নিষিদ্ধ ৭৮ টন ভারতীয় গ্রানাইট পাথর আনার ঘটনায় পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। গত মঙ্গলবার তাদের আটক করার পর রাতে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিভিন্ন সরকারি কর্মকর্তার প্রায় দেড় শ ভুয়া সিল ও বিপুল পরিমাণ কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

আটক ব্যক্তিরা হলো মনিরুল ইসলাম ময়না, খোরশেদ আলম খুশী, আসাদুল ইসলাম ও মাহামুদুল হক মামুন।

সাতক্ষীরা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি এনামুল হোসেন জানান, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাটের রপ্তানিকারক সাইফ এন্টারপ্রাইজ ভোমরা বন্দর দিয়ে আমদানি নিষিদ্ধ সাড়ে ৭৮ টন গ্রানাইট পাথর বাংলাদেশে রপ্তানি করে। ভারতের ঘোজাডাঙ্গা বন্দর পার করে ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টার দিকে বাংলাদেশের চারটি কাভার্ড ভ্যানে ভর্তি করার সময় বিজিবি সদস্যরা তা আটক করে। সাড়ে ৭৮ মেট্রিক টন ওজনের ওই গ্রানাইটের আমদানিকারক ঢাকার ২২ পুরানা পল্টনের একে ট্রেড লাইন লিমিটেড। সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মো. মনিরুল ইসলাম ময়না খুলনার ওভারসিজ ট্রেডিং করপোরেশনের লাইসেন্স ভাড়া নিয়ে জাল কাগজপত্র তৈরি করে তা বাংলাদেশে নিয়ে আসেন।

এনামুল হোসেন আরো জানান, পরে ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দর এলাকায় বিজিবি সদস্যরা তা আটক করেন।


মন্তব্য