kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মাদকাসক্তের হাতুড়িপেটায় কটিয়াদীতে বাবার মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

১০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে পিতাকে হত্যা করল মাদকাসক্ত ছেলে। গতকাল বুধবার ভোরে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী পৌরশহরের পশ্চিমপাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত মুক্তিযোদ্ধা মীর এমদাদুল কবির মানিকের (৬৫) ছেলে মাদকাসক্ত আনোয়ারুল কবির জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর আগে গভীর রাতে প্রতিবেশী সংখ্যালঘুদের পাঁচটি বাড়িতে তাণ্ডব চালায় জন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, কটিয়াদী শহরের ব্যবসায়ী মীর এমদাদুল কবির মানিকের একমাত্র সন্তান আনোয়ারুল কবির জন। কয়েক বছর আগে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে চাকরি হলেও সে চাকরিচ্যুত হয়। হেরোইনসহ নানা রকম মাদক সেবন করতে গিয়ে প্রতিদিন তার অনেক টাকা খরচ হয়। অনেক দিন ধরেই জন টাকার জন্য তার মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যদের ওপর অত্যাচার চালাচ্ছিল। ছেলের অত্যাচার সইতে না পেরে কিছুদিন আগে বাবার বাড়ি চলে যান জনের মা। তিন কন্যাসন্তানের জনক জন সম্প্রতি তার স্ত্রীকেও পিটিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, গতকাল বুধবার ভোরে বাড়ি খালি পেয়ে জন তার বাবার ওপর হাতুড়ি নিয়ে চড়াও হয়। এ সময় পিটিয়ে তার বাবাকে রক্তাক্ত জখম করে ফেলে রাখে জন। পরে প্রতিবেশী অন্তত পাঁচটি হিন্দু বাড়িতে ভাঙচুর চালায় সে। খবর পেয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন এসে জনকে সামলাতে ব্যর্থ হয়ে পুলিশে খবর দেন।

পুলিশ এসে জনকে আটক করে। তবে এ সময় তাঁর হামলায় ওসি, দুই এসআই ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর আহত হন। এ সময় তার বাবাকে উদ্ধার করে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

 

সহকারী পুলিশ সুপার (হোসেনপুর সার্কেল) মো. জামালউদ্দিন ও কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

কটিয়াদী থানার ওসি আব্দুস সালাম জানান, নিহতের শ্যালক গোলাম সারোয়ার বাদী হয়ে বুধবার বিকেলে ঘাতক ভাগ্নের বিরুদ্ধে কটিয়াদী থানায় মামলা করেছেন। মামলায় জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।


মন্তব্য