নতুন ঘরে সংসার হলো না মান্নানের-333114 | প্রিয় দেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১১ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৩ জিলহজ ১৪৩৭


দুবাইয়ে সেপটিক ট্যাংক দুর্ঘটনা

নতুন ঘরে সংসার হলো না মান্নানের

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



অনেক সাধ করে ১৫ লাখ টাকায় কিনলেন জমি। সে জমিতে আরো ৩৫ লাখ টাকা খরচ করে নির্মাণ করেছিলেন পাকা ঘর। ঘরে চলছে নেট ফিনিশিংয়ের কাজ। কয়েক দিনের মধ্যে নতুন আসবাব কেনার জন্য বড় ভাই সাবের সওদাগরের কাছে টাকাও পাঠিয়েছিলেন তিনি। গত কোরবানির ঈদের আট দিন পর মধ্যপ্রাচ্যের দেশ দুবাইয়ে চলে যান। যাওয়ার সময় মা মোহছেনাকে কথা দিয়েছিলেন আগামী জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে বাড়িতে এসে বিয়ে করে নতুন ঘরেই শুরু করবেন সংসার। ঘর হলো, আসবাব হলো। অথচ হলো না মান্নানের দেশে ফেরা। হলো না বিয়ে করে নতুন সংসার। বলছি, দুবাই প্রবাসী বোয়ালখালীর ধোরলা গ্রামের মৃত আহমদ মিয়ার ছোট ছেলে মো. আবদুল মান্নানের কথা। গত শনিবার দুবাইয়ে সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কারের সময় বিষক্রিয়ায় মারা যান তিনি। একই দুর্ঘটনায় রাঙ্গুনিয়া উপজেলার লোকমান নামে আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। খবর পৌঁছলে দুই পরিবারে শোকের ছায়া নেমে আসে।

জানা গেছে, মৃত আহমদ মিয়ার পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে মান্নান সবার ছোট। পরিবারের অভাব ঘোচাতে পাঁচ বছর আগে ঋণ করেই দুবাই গিয়েছিলেন তিনি।

এ ব্যাপারে তার বড় ভাই সাবের আহমদ সওদাগর বলেন, ‘এবার শেষবারের মতো বিদেশ যাওয়ার দিন সে আমাদের বলেছিল তোমরা টাকার জন্য চিন্তা করো না। যেখান থেকে পারি টাকা আমি জোগাড় করে পাঠিয়ে দেব।’

মন্তব্য