সখীপুরে বিদ্যালয়ে ঢুকে ছাত্রকে গলা-332979 | প্রিয় দেশ | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


সখীপুরে বিদ্যালয়ে ঢুকে ছাত্রকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার ছোট মৌশা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র আশিক মিয়াকে (১৪) গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। গতকাল রবিবার সকালে বিদ্যালয় চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকাল ১১টার দিকে ওই বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র আশিক শ্রেণিকক্ষ থেকে শৌচাগারে যায়। এ সময় পেছন থেকে পাঁচ কিশোর গামছা দিয়ে আশিককে জাপটে ধরে তার চোখমুখ বেঁধে মেঝেতে ফেলে দেয়। তার গলা চেপে ধরে এবং ধারালো কাচ দিয়ে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করে। এ সময় শ্রেণি শিক্ষক নূরে আলম এগিয়ে গেলে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। একপর্যায়ে স্থানীয়রা অভিযুক্ত মো. জয় মিয়া (১৪), জাহিদ হাসান (১৬), মনির হোসেন (১৭) ও সুমন মিয়াকে (১১) ধরে ফেলে। এ সময় আরেক অভিযুক্ত সুজন (১৪) পালিয়ে যায়। পরে খবর দিলে পুলিশ তাদের থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় বিকেলে আশিকের বাবা মোক্তার আলী বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে সখীপুর থানায় মামলা করেছেন।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নূরে আলম বলেন, ‘কুকুরের ঘেউঘেউ শব্দ শুনে আমি এগিয়ে শৌচাগারের কাছে গেলে বখাটেরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় মেঝেতে পড়ে থাকা আশিককে উদ্ধার করে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই।’ অভিযুক্ত জয় বলে, ‘আশিক কিছুদিন আগে আমাকে মেরেছিল। তাই বন্ধুদের নিয়ে আমি তাকে মারতে যাই।’

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মাকছুদুল আলম বলেন, ‘শত্রুতার জের ধরে আশিককে বখাটেরা হত্যার চেষ্টা করে। থানায় মামলা হয়েছে।’

মন্তব্য