kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বাগেরহাটে চার ছাত্রীর একত্রে আত্মহননচেষ্টা

কুমিল্লায় গৃহবধূর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা ও বাগেরহাট প্রতিনিধি   

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাগেরহাটের চিতলমারীতে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি বিদ্যালয়ের চার ছাত্রী কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর ইউনিয়নের ওই চার কিশোরী সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী। ঘটনা তদন্তে উপজেলা প্রশাসন তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। কমিটিকে আগামী তিন দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

ওই চার শিক্ষার্থীর বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান, বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রের সঙ্গে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে বলে তাঁদের কাছে খবর আসে। এ ছাড়া কিছু ছাত্র মাঝেমধ্যে কয়েকজন ছাত্রীকে বিভিন্ন কোমল পানীয় (কোল্ড ড্রিংকস) খাওয়ায়। এতে বিভিন্ন সময় ওই ছাত্রীরা কিছুটা অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। বিষয়টি নজরে এলে শিক্ষকরা গত বৃহস্পতিবার শ্রেণিকক্ষে ওই ছাত্রছাত্রীদের বলে দেন গতকাল শনিবার তাদের অভিভাবকদের বিদ্যালয়ে নিয়ে আসতে। বিষয়টি ছাত্রছাত্রীরা তাদের অভিভাবকদের জানায়নি। শিক্ষকদের ধারণা, ওই চার ছাত্রী তাদের অভিভাবকদের বিদ্যালয়ে না আনলে শিক্ষকরা বকাঝকা করবেন। এ ভয়েই তারা শুক্রবার সন্ধ্যায় একসঙ্গে কীটনাশক পান করে। তবে আত্মহত্যার চেষ্টাকারীদের মধ্যে প্রেমে জড়ানো ওই ছাত্রী নেই। এ ঘটনার পর অভিভাবকদের নিয়ে শনিবারের ওই বৈঠক স্থগিত করা হয়। চিতলমারী থানার ওসি মো. রেজাউল করিম জানান, আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনাটি পুলিশের পক্ষ থেকেও তদন্ত করা হচ্ছে। চিতলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা জানান, চার ছাত্রীর সবাই আশঙ্কামুক্ত। তারা চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে।

এদিকে পারিবারিক কলহের জেরে কুমিল্লার বরুড়ার শুশুণ্ডা গ্রামে গতকাল শনিবার সকালে এক নারী আত্মহত্যা করেছেন। মৃত শাহিদা আক্তার (৩৩) ওই গ্রামের মো. রিপন মিয়ার স্ত্রী ও চার সন্তানের জননী। সূত্র জানায়. গতকাল সকালে বড় মেয়ে রিয়া আক্তারের (১১) মক্তবে আরবি পড়তে না যাওয়া নিয়ে রিপন ও শাহিদার মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। পরে রিপন মিয়া বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে শাহিদা ঘরের সিলিংয়ের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।


মন্তব্য