kalerkantho


রূপগঞ্জে ‘চাঁদাবাজ’ মামুন বাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ‘চাঁদাবাজ’ মামুন বাহিনীর সদস্যদের আটক ও শাস্তির দাবিতে লাঠিসোঁটা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার তারাব পৌরসভার রূপসী বকুলনগর কলাবাগান এলাকায় এ বিক্ষোভ হয়। বিক্ষোভের মুখে মামুন বাহিনীর অন্যতম সদস্য রিপন ও আশরাফুল নামের দুজনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রিপন জামালপুরের মেলান্দহ থানার চরবসন্ত এলাকার রেজাউল মিয়ার ছেলে ও আশরাফুল রাজধানীর নবাবগঞ্জ থানার দড়িকান্দা এলাকার লোকমান খানের ছেলে।

বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রূপসী এলাকার চান মিয়ার ছেলে মামুন ওরফে চান্দা মামুন সহযোগী রিপন, ছালাম, আশরাফুলসহ তার বাহিনীর অন্য সদস্যদের নিয়ে এলাকার সাধারণ ও নিরীহ মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে চাঁদা আদায় করে আসছেন এ বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে এলাকায় চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, মাদক কারবার, জুয়ার আসর বসানোসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডেরও অভিযোগ রয়েছে। তারা স্থানীয় পোশাক কারখানার নারী শ্রমিকদের আটকের পর শ্লীলতাহানি করে। কেড়ে নেয় টাকা-পয়সা, মোবাইল ফোনসেট। এলাকায় কেউ জমি কিনে ঘরবাড়ি নির্মাণ করতে গেলে এ বাহিনীকে চাঁদা দিতে হয়। চাঁদা না দিলে হামলা ও হত্যার হুমকি পাওয়া যায়। মামুন বাহিনীর কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ।

অভিযোগ উঠেছে, গত দুই দিনে মামুন বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে স্থানীয় জয়নাল আবেদীন, গোলাপী বেগম, আব্দুর রশিদ, চা দোকানদার দিলদার, বাবুল মিয়া, সুরুজ মিয়া ও খোরশেদ মিয়ার কাছ থেকে ৯৬ হাজার টাকা আদায় করেছে। আর চাঁদা না দেওয়ায় মুসা ও হানিফ নামের দুজনকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা চালায়। এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হলেও মামুন বাহিনীর বিরুদ্ধে তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে এলাকাবাসী। গতকাল দুপুরে রূপসী কলাবাগানসহ আশপাশের এলাকার শত শত নারী-পুরুষ লাঠিসোঁটা নিয়ে মামুন বাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করে। সংবাদ পেয়ে রূপগঞ্জ থেকে বিপুলসংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত এলাকাবাসীকে মামুন ও তাঁর বাহিনীর সদস্যদের আটকের আশ্বাস দেয়। একপর্যায়ে পুলিশ ওই বাহিনীর সদস্য রিপন ও আশরাফুলকে আটক করে।


মন্তব্য