kalerkantho

বাসচাপায় আবরার হত্যা

৬ দিন পর ক্লাসে বিইউপি শিক্ষার্থীরা

সনদসহ আবরারের ব্যাগটি হারিয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৬ দিন পর ক্লাসে বিইউপি শিক্ষার্থীরা

বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থীরা ছয় দিন পর গতকাল সোমবার ক্লাসে ফিরেছে। রাজধানীর প্রগতি সরণিতে জেব্রাক্রসিংয়ে আবরার আহমেদ চৌধুরীকে বাসচাপায় ‘হত্যার’ প্রতিবাদে তাঁর বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠীরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে। পরবর্তী সময়ে তারা আবারও রাস্তায় নামবে বলে জানিয়েছে। এদিকে বাসচাপায় নিহত হওয়ার সময় আবরারের সঙ্গে থাকা ব্যাগটি খুঁজে পায়নি তাঁর পরিবার। ওই ব্যাগে তাঁর সনদপত্র ছিল। আবরারের বাবা ও সহপাঠীরা ব্যাগটি ফেরত পেতে সবার সহায়তা চেয়েছেন। 

গত ১৯ মার্চ সকালে প্রগতি সরণির বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ফটকের কাছে জেব্রাক্রসিংয়ে বিইউপির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ছাত্র আবরারকে ‘চাপা দিয়ে হত্যা’ করে সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাস। এর পর থেকে শিক্ষার্থীদের আট দফা দাবির আন্দোলন শুরু হয়। ২০ মার্চ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ও ডিএমপি কমিশনারের আশ্বাসে ২৮ মার্চ পর্যন্ত সড়ক অবরোধ কর্মসূচি স্থগিত করে শিক্ষার্থীরা। তবে ২১ মার্চ (বৃহস্পতিবার) এবং ২৪ মার্চ (রবিবার) রাজপথে নামে তারা। রবিবার ঘটনাস্থল ছাড়াও মিরপুরের ১০ নম্বর, ১২ নম্বর, ডিওএইচএস মোড় ও কালশী মোড়ে মানববন্ধনের পাশাপাশি সড়কে শৃঙ্খলায় কাজ করে বিইউপি শিক্ষার্থীরা। গতকাল তারা কোনো কর্মসূচি পালন না করে ক্লাসে ফিরে গেছে।

এদিকে আবরারের বাবা ব্র্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আরিফ আহমেদ চৌধুরী জানান, ছেলের মৃত্যুর পর সনদপত্রসহ ব্যাগটিও হারিয়েছেন তাঁরা। ব্যাগ ফেরত পাওয়ার আকুতি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ওর (আবরার) ব্যাগের মধ্যে এ-লেভেল এবং ও-লেভেলের সার্টিফিকেটসহ প্রয়োজনীয় কাগজ, খাতা ও বই ছিল। ওই দিন এয়ারফোর্সে আইএসএসবি (ইন্টার সার্ভিস সিলেকশন বোর্ডে) একটি পরীক্ষার জন্য পেপারগুলো নিয়ে গিয়েছিল। ব্যাগটিতে টাকা-পয়সা কিছু ছিল না। শুধু কিছু কাগজ। ছেলের অর্জনগুলোও হারিয়ে গেলে কষ্টটা বাড়বে। কেউ ব্যাগটির সন্ধান দিতে পারলে কৃতজ্ঞ থাকব।’

আবরারের ব্যাগটির সন্ধান চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়েছে তাঁর সহপাঠীরাও। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী নাজমুস সাকিব তাঁর ফেসবুক প্রফাইলে একটি পোস্ট দিয়ে ব্যাগটি কারো সন্ধানে থাকলে আবরারের মামা মাসুদ (০১৮১৯২৩১৬০৮) ও নাজমুস সাকিবের (০১৬৭৯৩২৫৩৪৯) নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেছেন।

মন্তব্য