kalerkantho


যেসব কারণে ডায়েট ব্যর্থ হয়

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



যেসব কারণে ডায়েট ব্যর্থ হয়

অপর্যাপ্ত ঘুম

ঘুম কম হলে দেহে নানা বিরূপ প্রতিক্রিয়া পড়ে। এতে ক্ষুধাও লাগবে অতিরিক্ত। গবেষণায় দেখা গেছে, ঘুমের অভাবে শরীরে ক্ষুধার জন্য দায়ী হরমোন বাড়ে। আপনি যতই সচেতন থাকুন না কেন, এর বিপরীত পরিস্থিতি হবে।

 

অতিরিক্ত টিভি দেখা

দৈনিক প্রতি দুই ঘণ্টা অতিরিক্ত টিভি দেখার সঙ্গে সঙ্গে ওবেসিটির ঝুঁকি বেড়ে যেতে থাকে ২৩ শতাংশ। মধ্যবয়সী নারীদের ওপর করা একটি গবেষণায় এটি দেখা যায়। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে দৈনিক দুই ঘণ্টার বেশি টিভি না দেখাই ভালো।

 

মনোযোগ ছাড়াই খাওয়া

খাওয়ার সময় কত কিছুই না আমরা করি। টিভি দেখি, টেক্সট করি, কথা বলি, ফেসবুক ব্যবহার করি অথবা অফিসের কাজ করি। এসব কাজ করতে গিয়ে আমাদের আসলে খাওয়া বেশি হয়ে গেলেও আমরা সেদিকে খেয়াল করি না মোটেই।

 

ঘন ঘন বাইরে খাওয়া

হোটেল-রেস্টুরেন্টে গেলে আমরা সাধারণত ২০০ ক্যালরি অতিরিক্ত খেয়ে ফেলি। খাবারের পরিমাণ বেশি হওয়া, ফ্যাট বেশি হওয়া এবং প্রক্রিয়াজাত খাবার বেশি খাওয়ার ফলে বেশি ক্যালরি গ্রহণ হয়ে যায়। এর চেয়ে বাড়িতে খাওয়া হলে অনেক কম ক্যালরি খাওয়া হয় এবং স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া হয়।

 

ডায়েট সফট ড্রিংকস

বিভিন্ন ধরনের ডায়েট কোলা আপনার জন্য মোটেই ভালো নয়। এগুলো পান করলে আপনার ডায়েটের উপকার না হয়ে বরং অপকার হওয়ার শঙ্কাই বেশি। ডায়েট সোডাজাতীয় পানীয় পান করলে ওজন বাড়া, টাইপ টু ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, স্ট্রোক ইত্যাদি সমস্যা দেখা দিতে পারে।

 

নাশতা বাদ দেওয়া

নাশতা বাদ দেওয়াটা অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রার একটি বড় লক্ষণ। যারা সকালে নাশতা বাদ দেয় তারা নানা ধরনের স্বাস্থ্যগত সমস্যায় পড়ে। এ ছাড়া আরেকটি গবেষণায় দেখা যায়, যারা বেশ ভারী একটি নাশতা করে থাকে সকালে, তারা অন্যদের চেয়ে বেশি ওজন কমাতে সক্ষম হয়।

 

জুস ক্লিনস ডায়েট

অনেকেই ওজন কমানোর শর্টকাট হিসেবে বেছে নেয় এই ডায়েট। এমনকি অনেক সেলিব্রিটিও এই ডায়েট অনুসরণ করে। আপনি যদি চিরতরে ওজন কমাতে চান তাহলে এই ডায়েট অনুসরণ না করাই ভালো। কারণ এতে ওজন কিছু সময়ের জন্য কমে গেলেও আবার ফিরে আসতে পারে।

হেলথ অবলম্বনে ওমর শরীফ



মন্তব্য