kalerkantho


এখনো সন্ধান মেলেনি ২০ শ্রমিকের

মাসুদ খান, চরঝাপটা (মুন্সীগঞ্জ) থেকে   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



এখনো সন্ধান মেলেনি ২০ শ্রমিকের

মুন্সীগঞ্জের মেঘনা নদীতে গতকাল বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের মতো ডুবে যাওয়া মাটিবোঝাই ট্রলার এবং নিখোঁজ শ্রমিকদের সন্ধান তৎপরতা অব্যাহত ছিল। তবে গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত ট্রলার কিংবা নিখোঁজ ২০ শ্রমিক কোনোটারই সন্ধান মেলেনি। সাইড স্ক্যান সোনারে শব্দ তরঙ্গের মাধ্যমে ট্রলারের সন্ধান চলছে। নৌবাহিনীর আট সদস্যের ডুবুরি দল ও বিআইডাব্লিউটিএর উদ্ধারকারী জাহাজ ‘প্রত্যয়’ সন্ধান তৎপরতায় যুক্ত হয়েছে গতকাল বিকেলে। মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে দুর্ঘটনাস্থলে সন্ধ্যায় জানান, শুক্রবার সকাল থেকে সন্ধান অভিযান আরো ব্যাপকভাবে চলবে।

গতকাল সকাল ৮টার দিকে দ্বিতীয় দিনের মতো সন্ধানে নামে বিআইডাব্লিউটিএ, ফায়ার সার্ভিস, নৌ পুলিশ ও কোস্ট গার্ড। সকাল থেকেই বিআইডাব্লিউটিএর সোনার মেশিনে শব্দ তরঙ্গের সাহায্যে নদীতে তৎপরতা শুরু করা হয়। দুপুরে সোনার মেশিনে ট্রলার সদৃশ একটি ধাতব বস্তুর সন্ধান পেয়েছে উদ্ধারকর্মীরা। তবে ওই ধাতব বস্তুটি ডুবে যাওয়া ট্রলার নয় বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। নদীর তলদেশে ডুবুরিরা প্রায় ৬০ ফুট পানির গভীর থেকে ফিরে জানান এটি ট্রলার নয়। মুন্সীগঞ্জের ইউএনও ফারুক আহম্মেদ জানান, নৌ বাহিনীর বিশেষ ডুবুরি দল গতকাল সন্ধ্যার কিছু আগে দুর্ঘটনাস্থলে এসেছে। এই দলটি শুক্রবার সকাল থেকে অনুসন্ধান কাজে যুক্ত হবে। মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা দুর্ঘটনাস্থল থেকে জানান, এখনো দুর্ঘটনাস্থলটি শনাক্ত করা যায়নি। বড় আকারের মেঘনা নদীতে রাতে দুর্ঘটনা ঘটার কারণে স্থানটি চিহ্নিত করতে বিলম্ব হচ্ছে। তবে বেঁচে যাওয়া শ্রমিকদের সঙ্গে নিয়ে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। জেলার গজারিয়া উপজেলার কালীপুরা গ্রামসংলগ্ন নদীর তলদেশে সোনার মেশিনে শব্দ তরঙ্গের সাহায্যে সন্ধান চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

এদিকে নিখোঁজ স্বজনদের ভিড় বেড়েই চলেছে মেঘনার পাড়ে। স্বজনদের বুকফাটা আর্তনাদে মেঘনার পার ভারি হয়ে উঠেছে। নিখোঁজের তিন দিন পার হলেও এখনো কারো সন্ধান মেলেনি। অশ্রুসিক্ত চোখে তাদের অপেক্ষা, প্রিয়জনটির ভাগ্যে যাই ঘটুক, অন্তত লাশটি যেন তারা পায়।

ফায়ার সার্ভিস বলছে, দুর্ঘটনার সময় শ্রমিকরা প্রায় সবাই ঘুমিয়ে থাকায় ট্রলারডুবির স্থানটি চিহ্নিত করা যাচ্ছে না। আর ট্রলারের চালকও নিখোঁজ থাকায় অনুমানের ওপর নির্ভর করে অনুসন্ধানকাজ চালাতে হচ্ছে।

স্বজনদের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা : গতকাল দিনভর মেঘনার দুই তীরে নিখোঁজ শ্রমিকদের স্বজনদের চোখে-মুখে লক্ষ করা গেছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। স্বজনরাও মেঘনার বুকে খুঁজে বেড়িয়েছে নিখোঁজ স্বজনদের।

তদন্ত কমিটি : ট্রলারডুবির ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। ৯ সদস্যবিশিষ্ট এই কমিটির প্রধান মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোবাশ্বেরুল ইসলাম। কমিটির বাকি আট সদস্য হচ্ছেন—ইউএনও মুন্সীগঞ্জ সদর ও গজারিয়া উপজেলা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  (সদর ও গজারিয়া সার্কেল), সংশ্লিষ্ট এলাকার  কোস্ট গার্ড কর্মকর্তা, নৌ পুলিশের কর্মকর্তা, বিআইডাব্লিউটিএ কর্মকর্তা, ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা এবং জেলা ত্রাণ ও দুর্যোগবিষয়ক কর্মকর্তা।



মন্তব্য