kalerkantho


পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষক নিয়োগে বাধ্যতামূলক লিখিত পরীক্ষা চান ভিসিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে লিখিত পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করার প্রস্তাব দিয়েছেন উপাচার্যরা। শিক্ষকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণব্যবস্থা চালুরও সুপারিশ করেন তাঁরা। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) আয়োজিত এক কর্মশালায় এসব মতামত উঠে আসে। কর্মশালায় ৪০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, শিক্ষক নিয়োগে নানামুখী জটিলতা কাটিয়ে একটি সুষ্ঠু নিয়োগপ্রক্রিয়া চালু করতে বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিন্ন নিয়োগ-পদোন্নতি নীতিমালা তৈরি করা হচ্ছে। শিক্ষকদের পরামর্শগুলো বিচার-বিশ্লেষণ করে এরপর এটি কার্যকর করা হবে।

ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, ‘অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে মেধাবী ও যোগ্য প্রার্থীদের বাতিল করে কর্তৃপক্ষের পছন্দের প্রার্থীকে নিয়োগের সুপারিশ করা হচ্ছে। এসব কারণে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিন্ন নীতিমালা করতে চাই। দেশের উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থাকে উচ্চপর্যায়ে নিতেই আমরা এমন কর্মসূচি হাতে নিয়েছি।’

শিক্ষক নিয়োগ, পদোন্নতি, পদায়ন ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক এ কর্মশালায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন বলেন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যে বৈষম্য রাখা যাবে না। যোগত্যার ভিত্তিতে তাঁদের গ্রেড প্রদান করতে হবে। ২০২০ সাল থেকে অভিন্ন শিক্ষক নিয়োগ-পদোন্নতি কার্যকর করার আহ্বান জানান তিনি।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর আব্দুস সোবহান বলেন, অভিন্ন নিয়োগ নীতিমালা বাস্তবায়ন করলে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তিতে জিপিএ ৯ করা প্রয়োজন। তাহলেই ভালো শিক্ষক পাওয়া যাবে। তবে নিয়োগের ক্ষেত্রে এসএসসি-এইচএসসি সার্টিফিকেট মূল্যায়ন না করে অনার্স-মাস্টার্স সার্টিফিকেট মূল্যায়ন করার পরামর্শ দেন তিনি।

 

 



মন্তব্য