kalerkantho


হাসিনা-মোদি আজ ভিডিও কনফারেন্স

আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসছে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আজ সোমবার বিকেলে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হচ্ছেন। জানা গেছে, ভারত থেকে বাংলাদেশে আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হবে। শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি আজ আনুষ্ঠানিকভাবে তা উদ্বোধন করবেন। নতুন করে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বহরমপুর গ্রিড থেকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার আন্তবিদ্যুৎ সংযোগ গ্রিডে যুক্ত হবে। এই ৫০০ মেগাওয়াটের মধ্যে ৩০০ মেগাওয়াট আসবে ভারতের সরকারি খাত ‘ন্যাশনাল থার্মাল পাওয়ার প্ল্যান্ট’ (এনটিপিসি) থেকে। অপর ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আসবে ভারতের বেসরকারি খাত ‘পাওয়ার ট্রেডিং করপোরেশন’ (পিটিসি) থেকে।

এদিকে আখাউড়া-আগরতলা রেললাইন প্রকল্পও আজ উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি এ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন। তাঁরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া জংশনে আয়োজিত সুধী সমাবেশে যুক্ত হবেন।

শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি গত ৩০ আগস্ট নেপালের কাঠমাণ্ডুতে বিমসটেক সম্মেলনের ফাঁকে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট সব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে ভারত থেকে আমদানি করা বিদ্যুতের পরিমাণ ৬৬০ মেগাওয়াট। এর মধ্যে ৫০০ মেগাওয়াট পশ্চিমবঙ্গের বহরমপুর থেকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় যুক্ত হয়েছে। এর বাইরে আরো ১৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য থেকে কুমিল্লায় বিদ্যুৎ গ্রিডে যুক্ত হয়েছে।

২০১৩ সালে ভারত থেকে প্রথমবারের মতো বিদ্যুৎ আমদানি শুরু হয় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা দিয়ে। পরের বছর দুই দেশের বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত যৌথ স্টিয়ারিং কমিটি ভেড়ামারা আন্তসংযোগ গ্রিডের সক্ষমতা বাড়াতে উদ্যোগ নেয়। এরপর নতুন করে আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির জন্য নতুন সাবস্টেশন নির্মাণ ও এর সঙ্গে ভেড়ামারা-ঈশ্বরদী ২৩০ কিলোভোল্ট (কেভি) ‘ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন’ নির্মাণ করা হয়েছে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে সহযোগিতা বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিক। ২০১৩ সালে পশ্চিমবঙ্গ থেকে এবং ২০১৬ সালে ত্রিপুরা থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আমদানি শুরু হয়েছে।

 



মন্তব্য